দশ টাকা কেজি দরে চাল না দেয়ায় ক্ষোভ ক্ষেতমজুর সমিতির

নিজস্ব প্রতিবেদক

দরিদ্র মানুষের মধ্যে দশ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহের ব্যবস্থা না করায় নেতৃবৃন্দ সরকারের এই উদাসীনতার নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্ষেতমজুর সমিতির নেতৃবৃন্দ।

ভূমিহীন ক্ষেতমজুরদের মধ্যে দশ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহ ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গরিবদের ঘরবাড়ি নির্মাণ ও পুনর্বাসনের দাবি জানান তারা।

ক্ষেতমজুর ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় এ ক্ষোভ জানানো হয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিমল বিশ্বাসের সভাপতিত্বে তোপখানা রোডে শহীদ আসাদ মিলনায়তন সভায় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রাজু সাংগঠনিক ও সভার আলোচ্যসূচি উপস্থাপন করেন।

এতে বলা হয় দীর্ঘ বন্যায় খেতমজুরসহ গ্রামের দরিদ্র মানুষদের জীবনযাপন দুর্বিসহ হয়ে পড়েছে। কিন্তু দীর্ঘ ছয় মাসেও দরিদ্র মানুষের মধ্যে দশ টাকা কেজি দরে চাল সরবরাহের ব্যবস্থা না করায় নেতৃবৃন্দ সরকারের এ উদাসীনতার নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এছাড়াও বন্যা পরবর্তীতে দরিদ্রদের ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি নির্মাণ এবং পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করায় নেতৃবৃন্দ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। এ সময়ে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীরা কারসাজি করে চালের মূল্য ব্যাপক বৃদ্ধি করে কিন্তু সরকারের ভূমিকাও নিন্দাযোগ্য।

সভায় নেতৃবৃন্দ ভিজিএফ, ভিজিডি এবং ১০০ দিনের কর্মসূচি চালু ও প্রকৃত খেতমজুরদের তালিকা করাসহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্রদের ঘরবাড়ি পুনঃনির্মাণ, নদী ভাঙ্গন এলাকায় ভাঙ্গন রোধ ও ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন, ক্ষুদ্র কৃষক ও খেতমজুরদের বীজ, সারসহ প্রয়োজনীয় কৃষি উপকরণ সরবরাহ এবং খেতমজুরসহ গ্রামীণ শ্রমজীবীদের কর্মসংস্থান ও তাদের সন্তানদের বিনামূল্যে শিক্ষা উপকরণ সরবরাহের দাবি জানান।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, অধ্যাপক ইয়াসিন আলী এমপি, অধ্যাপক নজরুল হক নিলু, অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, গাজী আব্দুল হামিদ, মাহাবুব আলম, অজিত কুমার মণ্ডল, মোফাম্মেল হোসেন মঞ্জু, ডা. সুজিত বর্মণ, তপন সাহা চৌধুরী, মোঃ ফয়জুল ইসলামসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.