লিবরা ফার্মাসিউটিক্যালের চেয়ারম্যান গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ব্যাংক কর্মকর্তাকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে মেসার্স লিবরা ইনফিউশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. রওশন আলমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর রূপনগর থানা পুলিশ মিরপুর শিয়ালবাড়ির লিবরার কারখানা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।
রওশন আলম লিবরা ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেডেরও চেয়ারম্যান।

রূপনগর থানার ওসি শহীদ আলম জানান, আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড থেকে ঋণ নিয়েছিলেন ড. রওশন আলম। যথাসময়ে তিনি ঋণ পরিশোধ করেননি। উল্টো ওই ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ ফজলুল করীমকে হত্যার হুমকি দেন। এ ঘটনায় ২০১৫ সালের এক অক্টোবর তার বিরুদ্ধে মতিঝিল থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি নং ৩০/২০১৫) করা হয়। ওই জিডি তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা আদালতে প্রতিবেদন জমা দেন। প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। পরোয়ানা হাতে পেয়ে লিবরার শিয়ালবাড়ি কারখানা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ব্যাপারে আল-আরাফাহ ব্যাংকের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাসুম মিজান জানান, ২০১৫ সালের ১৮ আগস্ট পর্যন্ত মেসার্স লিবরা ইনফিউশনসের কাছে ব্যাংকের পাওনা দাঁড়ায় ৮৭ কোটি ৪৬ লাখ ৫২ হাজার ৩৩১ টাকা। বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য বাধ্য হয়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অর্থঋণ আদালতে যান এবং বেশ কয়েকবার আদালতের আদেশও অমান্য করেন লিবরা কর্তৃপক্ষ। একপর্যায়ে আদালত খেলাপী বিনিয়োগ গ্রহীতার বন্দকী সম্পত্তি নিলামের নির্দেশ দেন। ফলে ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় নিলাম বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হলেই মেসার্স লিবরা ইনফিউশন্স লিঃ এর মালিক ড. রওশন আলম উত্তেজিত হয়ে তার ব্যবহৃত মোবাইল (০১৭১১৫২৪৮১১) নম্বর থেকে ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুল করিমকে হত্যার হুমকি দেন। এতে উপব্যবস্থাপনা পরিচালক তার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মতিঝিল থানায় একটি জিডি করেন।

পুলিশ তদন্ত শেষে ঘটনার সত্যতা পায় এবং সংশ্লিষ্ট আদালতে একটি মামলা করে। পরে আদালত তার নামে গত ২৪ সেপ্টেম্বর রওশন আলমের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করেন। এ পরিপ্রেক্ষিতে আজ তার প্রতিষ্ঠান লিবরা ইনফিউশন্স থেকে রূপনগর থানার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.