ভালো থেকো, প্রিয় ক্যাম্পাস : জীবনের বাঁকে বাঁকে

মো: ইয়াসির ইরফান

তোমার মনে আছে প্রথম দিনের কথা? সেই যে দুরু দুরু বুকে বাস থেকে নামা, সায়েন্স ফ্যাকাল্টির দিকে শঙ্কা, সংশয় সমেত ত্রস্ত পদে হেঁটে যাওয়া! হাঁটতে হাঁটতে তোমার ওপর বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা দৃষ্টিনন্দন মসজিদ, লাইব্রেরির দিকে কিছুটা বিস্ময় নিয়ে তাকিয়ে থাকা! আচ্ছা, সত্যিই কি বিস্ময় নিয়ে তাকিয়ে ছিলাম? আমার মনে নেই, তোমার আছে কি? সারা দেহে সঞ্চারিত প্রতিটি মুহূর্তের অনুভূতি তো পদতল হয়ে তুমি পর্যন্ত পৌঁছে যাওয়ার কথা!
মনে আছে উত্তাল সেইসব দিনের কথা? রুবেল ভাইয়ের জন্য সেøাগানে প্রকম্পিত হওয়া তোমার প্রাঙ্গণ? আমি তখন তোমার বুকে সদ্য আগত। কি অদ্ভুত শিহরণ আর উত্তেজনা নিয়ে আন্দোলন দেখছিলাম। চুলের মাথা থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত কেঁপে উঠা, প্রতিটি লোমকূপের গোড়ায় জাগানো শিহরণের সাক্ষী তো, তুমিই ছিলে। ছিলে না?
আচ্ছা, নিয়াজ ভাইয়ের কথা মনে আছে? তখন তো অনেক কিছুই বুঝতে শিখেছি। তোমাকেও চেনা হয়ে গিয়েছিল অনেকটা। নিয়াজ ভাইয়ের শোক ব্যানারের সম্মুখে বোবা কান্নায় পা’টা কেমন শ্লথ হয়ে পড়েছিল তা তোমার চেয়ে ভালো আর কে জানে! সেবারও মুহুর্মুহু স্লোগানে কেঁপেছিলে তুমি, কেঁপেছিল তোমার ওপর খোলা চাদরের মতো থাকা আকাশটাও। মনে আছে সেসব? নেহলিন আপুর জন্য শোকস্তব্ধ বিশ্ববিদ্যালয়কে মনে আছে তোমার?
তোমার বুকজুড়ে কখনো দাপিয়ে চলেছি, কখনো ত্বরিত ছুটেছি, কখনো হেলেদুলে আয়েশে হেঁটেছি। কখনো আড্ডা দিয়েছি, সাজিয়েছি কথার পাহাড়। কখনো মন খারাপের গল্প নিয়ে তোমার দিকে চেয়ে নীরবতায় কাটিয়ে দিয়েছি। কখনো স্যারকে দেখে সটকে গেছি তোমার এপাশ থেকে সেপাশে, কখনো বন্ধুর কাঁধে হাত রেখে হেঁটেছি নিশ্চিন্তে। কত গল্প, কত কান্না, কত দুঃখ, কত হাসি, আমাদের কত অম্ল-মধুর স্মৃতির সাক্ষী তুমি। আমাদের হয়তো মনে নেই সব, তোমার মনে আছে নিশ্চয়!
আন্তর্জাতিক ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.