পর্দায় বিন্যাস : অন্দর সজ্জা

ঝরনা রহমান

নিওট্রাল এলিগ্যান্স
জানালায় নিওট্রাল টোনের পর্দার কাপড় ঘরে নিয়ে আসে অভিজাত আমেজ। আইভরি, ক্রিম, সাদা, ধূসর প্রভৃতি রঙের পর্দার সাথে সোনালি রঙের ফিতা বা বাঁধুনি জানালার সাজে নিয়ে আসে আভিজাত্য। এসব রঙ এক দিকে যেমন সাধারণ, অন্য দিকে ঘরের উজ্জ্বলতা বাড়াতে অদ্বিতীয়।
বারান্দায় পর্দা
শুধু ঘরের ভেতরের সৌন্দর্যের জন্য নয়, পর্দা বারান্দায়ও হতে পারে আকর্ষণ। বারান্দায় দিন প্রকৃতির সাথে রঙ ও নকশা মিলিয়ে পর্দা। বেশ রিলাক্সিং একটা আবহ তৈরি হবে। এক্ষেত্রে সহজে পরিষ্কার করা যায়, এমন ফেব্রিক বাছাই করুন।
শেডের ব্যবহার
একরঙা কাপড় ব্যবহার না করে দুই-তিনটি শেড দেয়া কাপড় ব্যবহার করতে পারেন জানালার পর্দায়। এতে এক দিকে যেমন নতুনত্ব আসবে, অন্য দিকে তৈরি হবে বাড়তি সৌন্দর্য।
কনট্রাস্ট
রঙের ক্ষেত্রে কনট্রাস্টও ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে বিপরীতধর্মী দু’টি রঙের ব্যবহার জানালার সাজে আনবে অভিনবত্ব। যেমন গোলাপি ফেব্রিকে রাখতে পারেন সাদা স্ট্রাইপ বা নীলের ওপর গোলাপি ডট বা অন্য কোনো প্রিন্ট।
কাপড়ের ব্যবহার
জানালার পর্দায় নানা ধরনের ফেব্রিক ব্যবহার হয়। সুতি, লিলেন, নেট, সার্টিন থেকে শুরু করে মখমল, মসলিন, এমনকি ব্রোকেট পর্যন্ত। আপনি যদি ঘরে জমকালো লুক আনতে চান তাহলে মখমল, সার্টিন, নেট, এমব্রয়ডারি করা পর্দা বেছে নিন। তবে পর্দা বাছাই করার সময় ঘরের দেয়ালের রঙ ও আসবাবের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নির্বাচন করুন পর্দার কাপড়, রঙ ও ডিজাইন। ফয়ার, সামনের দরজা, লিভিং রুম ও কিচেনে অফহোয়াইট রঙের পর্দা ব্যবহার করুন। এতে বাড়িতে ঢোকার মুখে এলিগ্যান্ট লুক তৈরি হবে।

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.