শুভ’র জয় জয়কার

অভি মঈনুদ্দীন

চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ’র চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের সাফল্যের অন্যতম সময় পার করছেন। এর আগে তার মুক্তিপ্রাপ্ত কোন চলচ্চিত্র এতোটা আলোচনায় আসেনি, এতো ব্যবসা সফলও হয়নি যা ঘটেছে দীপংকর দীপন পরিচালিত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রটি মুক্তির পর।

গেল ৬ অক্টোবর শুভ অভিনীত এই চলচ্চিত্রটি মুক্তি পেয়েছে সারাদেশের ১২২টি সিনেমা হলে। পরবর্তী সপ্তাহে পুরোনো দশটি সিনেমা হলে বাদ দিয়ে নতুন পনেরোটি হলে মুক্তি দিয়ে সেই হল সংখ্যা দাঁড়ালো ১২৭-এ। রাজধানীসহ দেশের বিভাগীয় শহর, জেলা শহর এবং উপজেলা, মফস্বলে শুভ অভিনীত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ দর্শকের কাছে পৌঁছে দেবার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ টিম। চলচ্চিত্রটি মুক্তির ঠিক তিনদিন পরই আরিফিন শুভ আলমগীরের নির্দেশনায় ‘একটি সিনেমার গল্প’র দ্বিতীয় লটের শুটিং শুরু করেন। যে কারণে ‘ঢাকা অ্যাটাক’র প্রচারণায় কিংবা দর্শকের সঙ্গে হলে বসে সিনেমা উপভোগেরও সময় পাচ্ছেন শুভ খুব কম।

তারপরও সিনেমাটির শুটিং-এর ফাঁকে ফাঁকে শুভ চেষ্টা করছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’র বিভিন্ন প্রচারণায় অংশ নিতে। মুক্তির প্রথম দিন থেকেই ‘ঢাকা অ্যাটাক’ দর্শকের কাছে ছিলো ব্যাপক আলোচনায়। সেই আলোচনার ধারাবাহিকতার কারণেই এর দর্শকপ্রিয়তা দিনদিন বেড়েই চলেছে। সেইসাথে আরিফিন শুভও থাকছেন চলচ্চিত্রটিকে ঘিরে সবচেয়ে বেশি আলোচনায়। চলচ্চিত্র পাড়া, সিনেমাপ্রেমী দর্শক, ফেসবুক, দেশের বাইরের বাংলাদেশী প্রবাসীদের মধ্যেও আরিফিন শুভ অভিনীত এই চলচ্চিত্র নিয়েই চলছে আলোচনা। ভালো চলচ্চিত্র হলে দর্শক যে তা দেখেন তাই প্রমাণ করেছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’।

চলচ্চিত্রটির সাফল্য এবং নিজের সফলতা নিয়ে চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ বলেন, ‘একজন শিল্পী তখনই কাজ করে যখন তাকে কাজ করার জায়গা দেয়া হয়। এই চলচ্চিত্রের পরিচালক দীপন দা আমাকে নিয়ে ভেবেছিলেন। সে জন্য তার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। কৃতজ্ঞ আমি এই চলচ্চিত্রের মেইন হিরো গল্পকার সানী সানোয়ার ভাইয়ের কাছে। চারিদিকে চলচ্চিত্রটি নিয়ে এতো আলোড়নের মূল কারণ কিন্তু সানী সানোয়ার। যখন সিডিউল নিয়ে সমস্যা হচ্ছিলো, বাজেট নিয়ে সমস্যা হচ্ছিলো তখন সানী সানোয়ার ভাই পাশে দাঁড়িয়েছেন ছায়া হয়ে। কৃতজ্ঞ আমি পুরো টিমের কাছে। আমি সত্যিই অভিভূত দর্শকের ভালোবাসায়। এটাই প্রমাণিত হলো যে ভালো গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হলে দর্শক তা দেখেন। এটা মনপুরা, ছুঁয়ে দিলে মন, আয়নাবাজির ক্ষেত্রে প্রমাণিত হয়েছে। তেমনই প্রমাণিত হলো ঢাকা অ্যাটাকের ক্ষেত্রেও।’

আরিফিন শুভ সবসময়ই গল্পের প্রতি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। তার আগের সফল চলচ্চিত্রগুলোই তার প্রমাণ। গল্পে নতুনত্ব এবং ভিন্নতা না থাকলে, তার ভালো না লাগলে তিনি সেই চলচ্চিত্রে কাজ করেন না। এদিকে আরিফিন শুভ আজ ‘একটি সিনেমার গল্প’র শুটিং-এ বান্দরবান যাবেন। 

মোহসীন আহমেদ কাওছার

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.