স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে চসিক মেয়র আ জ ম নাছির

হেলাল হুমায়ুন ছিলেন বিনয়ী ও সাহসী

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, ‘পৃথিবীতে প্রতিদিন হাজারো মানুষ জন্মাচ্ছে; কিন্তু কিছু মানুষের জন্ম পৃথিবীকে পাল্টাতে আসে। চট্টগ্রামে তেমনই একজন মানুষ সাংবাদিক হেলাল হুমায়ুন। তিনি ছিলেন মৃদুভাষী, অসম্ভব রকমের বিনয়ী ও সাহসী মানুষ। তিনি আমাদের আলোকবর্তিকা। তিনি সৎ সাংবাদিকতার মশাল নিয়ে ছুটেছেন। সেই মশাল নিয়ে আমাদের আগামী পথে চলতে হবে।
গত ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় সাংবাদিক হেলাল হুমায়ুনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলে আয়োজিত স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে চসিক মেয়র এসব কথা বলেন। চট্টগ্রামের একটি কনভেনশন হলে মরহুম হেলাল হুমায়ুনের পরিবার ওই স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বাদ মাগরিব দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দারুল উলুম আলিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মকছুদ আহমদ দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন।
মরহুম হেলাল হুমায়ুনের শ্বশুর ওয়াকিল আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিল ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা: শাহাদাত হোসেন, সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের এমপি প্রফেসর আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী, চসিকের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, ইসলামী আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর আহসান উল্লাহ, ইউনানী বোর্ডের মহাসচিব হাকিম ফেরদৌস ওয়াহিদ, সমাজসেবা অধিদফতরের উপপরিচালক শহিদুল ইসলাম, সিটি কলেজের অধ্যাপক দিদারুল আলম, আল-হেলাল আদর্শ ডিগ্রি কলেজের অধ্য হারুনুর রশীদ, মাওলানা মামুনুর রশীদ নূরী, অ্যাডভোকেট জিয়া হাবিব আহসান, সাবেক লায়ন গভর্নর রফিক আহমদ, মরহুমের স্ত্রী মিসেস রোকসানা হেলাল ও তার সন্তান গালিব আল হিলালী বক্তৃতা করেন। রোকন উদ্দিন চৌধুরী রিপনের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেনÑ প্রবীণ রাজনীতিবিদ মাওলানা মুমিনুল হক চৌধুরী, মেয়রপতœী শিরীন আক্তার, সাংবাদিক সালাউদ্দিন রেজা, সাংবাদিক মুহাম্মদ শাহনেওয়াজ, সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, সাংবাদিক শফিউল আলম, সাংবাদিক কাশেম মাহমুদ, সাংবাদিক নুরুল মোস্তাফা কাজী, শহিদুল ইসলাম, হাফেজ আমান উল্লাহ, ইকবাল হাজী প্রমুখ। ডা: শাহাদাত হোসেন বলেন, সাংবাদিক হেলাল হুমায়ুন ছিলেন সময়ের সাহসী ও সৎ সাংবাদিকতার পথিকৃৎ। তিনি অর্থ, বিত্ত, চিত্ত ও মোহের ঊর্ধ্বে সাদাসিধে জীবন যাপন করে আলোকিত ব্যক্তিত্ব হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলেন। আজীবন তিনি সততা ও সাহসিকতাকে পুঁজি করে হয়ে ওঠেন সাহসী সাংবাদিকতার বাতিঘর। তার সৎ সাংবাদিকতা সর্বস্তরের মানুষকে উৎসাহিত করে আসছে। সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আসনের এমপি প্রফেসর আবু রেজা নদভী বলেন, ‘সারা জীবন তিনি তার সাংবাদিকতায় সত্যকে তুলে ধরেছেন। তিনি সহজভাবে বলতেন ও লিখতেন। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে যেতেন। যেকোনো লেখার গভীরে যাওয়ার চেষ্টা করতেন।’ স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘হেলাল হুমায়ুন ছিলেন বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার আদর্শ প্রতীক। সব সময় খবরের পেছনে ব্যতিব্যস্ত এ মানুষটি জীবনের প্রতিটি েেত্রই স্বার রেখেছেন। সাংবাদিকতার বাইরে ছিলেন সমাজসেবক। তার জন্ম, বেড়ে ওঠা ও জীবনের সমস্ত অঙ্গন মিলিয়ে তিনি একজন পরিপূর্ণ মানুষ ছিলেন। তিনি আমাদের আলোকবর্তিকা।’
আল-হেলাল আদর্শ ডিগ্রি কলেজ
আল-হেলাল আদর্শ ডিগ্রি কলেজে মরহুম ইসমাঈল হিলালীর ২৮তম ও কলেজ প্রতিষ্ঠাতা মরহুম হেলাল হুমায়ুনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অধ্য মুহাম্মদ হারুনর রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। কলেজছাত্র ফারুক হাসান ও আজাদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় কলেজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন কলেজ গভর্নিং বডির সদস্য বাবু নীল রতন দাশগুপ্ত ও মোহাম্মদ মোস্তাকিম চৌধুরী। শিক্ষকদের প থেকে বক্তব্য রাখেনÑ উপাধ্য মোহাম্মদ ইদ্রিস, মো: ইউনুচ মিয়া, মো: নুরুল আলম, মোহাম্মদ আবদুল মজিদ পাটোয়ারী, মো: ইসমাইল হোসেন ও মো: সেলিম উদ্দীন। ছাত্রছাত্রীদের প থেকে বক্তব্য রাখেনÑ মাইনুদ্দীন হাসান, কায়ছার হামিদ, ফাতেমা জান্নাত তানিসা, তাসফিয়া আরাবি, মনছুরা বিনতে মাহমুদ, রবিউল আলম ও নওশিন তারান্নুম জুলি।
সকালে মরহুমের রূহের মাগফিরাত চেয়ে কুরআন খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মুনাজাত ও দোয়া পরিচালনা করেন ইসলাম শিা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ শওকত হোসাইন সিরাজী।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.