ক্রিকেটে সাফল্য আনতে হলে

এস আর শানু খান

কিছু সৃজনশীল চিন্তা মাথায় রেখে কিছু নির্দিষ্ট কাজ করলে লাভের থেকে লোকসানের পরিমাণটা বেশি হলেও আনন্দের একটুও কমতি থাকবে না।

লাঠালাঠি
ক্রিকেট খেলা মূলত কিন্তু ব্যাট-বলের খেলা। বলকে ব্যাট দিয়ে বেদম পেটাতে হবে এটাই ফাস্ট অ্যান্ড ফরমোস্ট কাজ। তো ব্যাট দিয়ে ডানে-বামে সামনে ওপরে-নিচে এদিক-সেদিক ব্যাট চালাতে হয়। এটাকে অন্যভাবে বলা যায় লাঠি হাতে হাতের কারিশমা। কোনোমতে পিটাপিটি করা লোকজনকে এখানে ভিড়ান যায়, কেল্লা ফতে।

ধরাধরি
মায়ের বোন খালা হলেও ব্যাটিং করার পরেই ফিল্ডিং করার পালা আসে। আর ফিল্ডিং মানেই বল ধরতে হবে। তাই কোনোভাবে যদি সেই লোকগুলোকে দিয়ে একটা দল গঠন করা যায়, যিনারা ধরাধরিতে ওস্তাদ, তাহলে সাফলতা আসবেই আসবে। কয়েকটা নির্দিষ্ট দিবস বিশেষ করে ভালোবাসা দিবসে কিছু পার্কে গেলেই পাওয়া যাবে কিছু দুর্ধর্ষ ধরালু পেলেয়ার। যারা খপ করে ধরে বসতে পারে হাত, পা, কান ও নাক। এদের নিয়ে ক্রিকেট দল হলে জিত হবেই।

ছোড়াছুড়ি
বল ধরে তো আর বসে থাকলে চলবে না। ধরার পরেই ছুড়ে মারতে হবে। সেটা আবার হতে হবে চোখের পলকের থেকেও দুরূহ। তাই যদি কোনোভাবে গাড়িতে ককটেল বোমা আর ইট মারা লোকগুলোর সন্ধান পাওয়া যায় তাহলে ভালো ফল আসবে।
শুধু এটাই নয়, অনেক লোক আছে যাদের কিছু করার মুরোদ না থাকলেও বুঝে-না-বুঝে দর্শক গ্যালারি থেকে মঞ্চে বা খেলার মাঠে বোতল-কাগজ ছুড়ে মারে। এদের আনলেও যেকোনো ক্রিকেট দলের জয় হাতের তলে নয়, বোগলের তলে চলে আসবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.