একসঙ্গে আলভী ও নাবিলা

অভি মঈনুদ্দীন

অভিনয়ে এই প্রজন্মের প্রিয় দুই মুখ আলভী ও নাবিলা। দু’জনেই অভিনয়ে এই সময়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে দু’জনের একসঙ্গে একই নাটকে অভিনয় করা এবারই প্রথম। কুদরত উল্লাহ রচিত ও জয়ন্ত রোজারিও পরিচালিত ‘ভালোবাসি বা বাসিনা’ নাটকে তারা দু’জন প্রথম একসেেঙ্গ অভিনয় করেছেন। গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর উত্তরায় আশ্রয় শুটিং হাউজে নাটকটির দৃশ্যধারণের কাজ শেষ হয়েছে।

এনটিভিতে প্রতি শুক্রবার সন্ধ্যা ৬.৫০ মিনিটে বিষয়ভিত্তিক একটি নাটক প্রচার হয়। এনটিভিতে প্রচারের জন্যই ‘ভালোবাসি বা বাসিনা’ নাটকটি নির্মিত হয়েছে। নাটকের গল্প প্রসঙ্গে নির্মাতা জয়ন্ত রোজারিওর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ভালোবাসা বা প্রেম এই সময়ে এসে বেশ ঠুনকো হয়ে যাচ্ছে। দেখা যাচ্ছে যে ফেসবুকে পরিচয়ের সুবাধে দুটি ছেলে মেয়ের মধ্যে প্রেম হয়ে যায়। একসময় মেয়েটি ছেলেটির হাত ধরে বাসা থেকে পালিয়ে যায়। কিন্তু পালিয়ে এলেও একসময় সমস্যার সম্মুখীন হয়ে নিজেই দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়ে যায় যে সে আসলে ছেলেটিকে ভালোবাসে কী বাসে না। একরাতে নানান সমস্যার সম্মুখীন হয়ে মেয়েটি তার ভুল বুঝতে পারে। এগিয়ে যায় নাটকের গল্প।

নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে আলভী বলেন,‘ স্ক্রিপ্টটা আমার বেশ ভালোলেগেছে। জয়ন্ত দাদার নির্দেশনায় এর আগেও আমি দুটো নাটকে অভিনয় করেছি। তিনি বেশ যত্ন নিয়ে কাজ করেন। আর ভালোবাসি বা বাসিনা নাটকের গল্পটা একেবারেই সমসাময়িক। একজন মানুষের ভুল সিদ্ধান্তের কারণে যে অনেক মানুষের স্বপ্ন, আশা নষ্ট হয়ে যেতে পারে তা তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি ভীষণ উপভোগ করেছি কাজটি।’

নাবিলা বলেন,‘ জয়ন্ত দাদার নির্দেশনায় এবারই প্রথম কাজ করেছি। তাছাড়া আলভীর সঙ্গেও এটি আমার প্রথম কাজ। বেশ ভালোলেগেছে নাটকটিতে অভিনয় করে।’

আগামী যেকোন শুক্রবার নাটকটি এনটিভিতে প্রচার হবে বলে জানান জয়ন্ত রোজারিও। এর আগে আলভী জয়ন্ত’র নির্দেশনায় ‘কৃষ্ণকলি’ ও ‘তনিমার সুইসাইড নোট’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন।

২০১৩ সালে আলভী শাহেদ শরীফ খান নির্দেশিত ‘অসমাপ্ত কাহন’। নাবিলা ইসলাম এই মুহুর্তে বেশ কিছু ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে শামীম জামানের ‘ঝামেলা আনলিমিটেড’, বিপ্লব হায়দারের ‘মগের মুল্লুক’, সাজ্জাদ সুমনের ‘ছলে বলে কৌশলে’, আশীষ রায়ের ‘ভালোবাসার রং’ এবং হিমু আকরামের ‘বিদেশী পাড়া’। 

ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.