শা দে র রূ প ক থা

হায়েনা, বানর ও খরগোশের গল্প

রূপান্তর : হাসান হাফিজ

(গত দিনের পর)
জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তোমার প্রাণ বাঁচালাম আমরা। এখন কিনা উল্টা আমাদের ঘাড় মটকাতে চাইছ? বলি, এটি তোমার কেমন আক্কেল বাপু? এমন তো কথা ছিল না।
প্রচণ্ড ঝগড়া লেগে যায় তিনজনের। ওই সময় ওখান দিয়ে কোথায় যাচ্ছিল খরগোশ। বাগি¦তণ্ডা শুনে সে থমকে দাঁড়ায়। উঁকি দেয় হায়েনার বাড়ির ভেতরে। তিনজনের ঝগড়াঝাটি কী নিয়ে চলছে, সেটা জানতে চায়। বানর ও রামছাগল সবিস্তারে ঘটনা খুলে বলে। খরগোশ বড্ড চালাক। সে চট করে ব্যাপারটা বুঝে ফেলে। গম্ভীর হয়ে বলে,
তোমরা দু’জন এত বড় একটা হায়েনাকে ধরাধরি করে এত দূর পর্যন্ত নিয়ে এলে? সেটা তো ভাই সম্ভব না। উঁহু, আমি বিশ্বাস করলাম না তোমাদের কথা।
রামছাগল, বানর, হায়েনা তিনজনই একসাথে চেঁচিয়ে ওঠে।
হ্যাঁ হ্যাঁ সত্যি। এমনটিই ঘটেছে। খরগোশের নকল সন্দেহ দূর হয় না। অবিশ্বাসের হাসি হেসে বলে,
আচ্ছা, কাজটা করে আমাকে দেখাও তো আরেকবার।
(চলবে)

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.