হুমকিতে ভীত হয়ে বসে থাকবে না তেহরান
হুমকিতে ভীত হয়ে বসে থাকবে না তেহরান

হুমকিতে ভীত হয়ে বসে থাকবে না তেহরান

পার্সটুডে

ইয়েমেনের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনায় সৌদি আরবের অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় ইরান জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে লিখিত অভিযোগ পেশ করেছে। অন্যদিকে তেল পাইপ লাইনে বিস্ফোরণের ঘটনায় বাহরাইনের দাবির জবাবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি বলেছেন, বাহরাইনে যে কোনো ঘটনার জন্য ইরানকে দায়ী করা দেশটির কর্মকর্তাদের স্বভাবে পরিণত হয়েছে। কিন্তু তাদের এটা জেনে রাখা উচিত এ ধরনের শিশু সুলভ আচরণ, ষড়যন্ত্র ও মিথ্যাচারিতার দিন শেষ হয়ে এসেছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, ইরানের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ ও ষড়যন্ত্র ইরান-ভীতি ছড়িয়ে দেয়ারই প্রচেষ্টা। ধারণা করা হচ্ছে, ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের পরমাণু সমঝোতার পর আন্তর্জাতিক সমাজ এখন এটা বুঝতে পেরেছে কয়েকটি আরব ও পাশ্চাত্যের ইরান বিরোধী অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই এবং ইসরাইলি লবির দ্বারা প্রভাবিত হয়েই ইরানের বিরুদ্ধে ওইসব অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

রাজতন্ত্র শাসিত আরব দেশগুলো ও পাশ্চাত্যের সরকারগুলো ইরান বিরোধী প্রচার চালিয়ে এ অঞ্চলে নিজেদের অবৈধ রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বার্থ রক্ষার চেষ্টা করছে। এ অবস্থায় শত্রুদের চিহ্নিত করে তাদের ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে এ অঞ্চলের সরকার ও জাতিগুলোর আরো সতর্ক থাকা উচিত বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

ইরানের প্রতিক্রিয়ায় প্রতিপক্ষ হতভম্ব হবে: এইও

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা এইও'র প্রধান আলী আকবর সালেহি বলেছেন, পাশ্চাত্যের সঙ্গে তার দেশের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা সব পক্ষের স্বার্থ রক্ষা করছে। কাজেই এই সমঝোতা সব দেশ মেনে চলবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সালেহি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, পরমাণু সমঝোতা লঙ্ঘিত হলে ইরানের প্রতিক্রিয়ায় এই সমঝোতায় স্বাক্ষরকারী অন্য পক্ষগুলোকে হতভম্ব হবে।

রাজধানী তেহরানে গবেষণামূলক পরমাণু রিঅ্যাক্টর স্থাপনের পঞ্চাশতম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রোববার এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় সালেহি এসব কথা বলেন।

তিনি স্পষ্ট ভাষায় বলেন, ইরান শুরু থেকেই ধরে নিয়েছিল পরমাণু সমঝোতায় স্বাক্ষরকারী প্রতিপক্ষগুলো নিজেদের প্রতিশ্রুতি লঙ্ঘন করতে পারে। তাই সমঝোতা অনুযায়ী ইরান নিজের পরমাণু তৎপরতা কমিয়ে দিলেও প্রয়োজনে যাতে আবার আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়া যায় সে ব্যবস্থাও রেখে দিয়েছে।

মার্কিন সমর্থন তারাই পায় যাদের হাতে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ : ইরান

ইরানের নীতি নির্ধারণী পরিষদের আওতাধীন স্ট্র্যাটেজিক রিসার্চ সেন্টারের প্রধান কামাল খাররাজি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের স্বাধীন সরকারগুলোকে সন্ত্রাসবাদ থেকে রক্ষা করছে ইরান এবং তার দেশই হচ্ছে এ অঞ্চলের স্থিতিশীলতা রক্ষার প্রধান শক্তি।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনার কূটনীতিক একাডেমীতে গতকাল (শুক্রবার) এক সমাবেশের অবকাশে তিনি এ কথা বলেছেন।

মধ্যপ্রাচ্যকে অস্থিতিশীল করার জন্য সন্ত্রাসী নানা গোষ্ঠী তৈরি করায় কয়েকটি দেশের সমালোচনা করে ইরানের এ কর্মকর্তা বলেন, ‘এরা মার্কিন সমর্থন পায় কারণ তাদের হাতে রয়েছে যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ।’ ইরান ও আঞ্চলিক দেশগুলো সব ষড়যন্ত্র নস্যাৎ করে দিতে প্রস্তুত রয়েছে।

আমেরিকাকে বাদ দিয়ে ইরানের বন্ধু হোন: সৌদিকে রুহানি
ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি তার দেশের বিরুদ্ধে বিদ্বেষী নীতি পরিহার করতে সৌদি আরবের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে আমেরিকা এবং ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রতি অতিরিক্ত বিশ্বাসের জন্য রিয়াদকে এর পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

মন্ত্রী পরিষদের এক বৈঠকে প্রেসিডেন্ট রুহানি সৌদি আরবসহ আঞ্চলিক দেশগুলোর উন্নয়নে ইরানের দৃঢ় সমর্থনের কথা পুর্নব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, ‘এ অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে ভ্রাতৃত্ব, বন্ধুত্ব এবং পারস্পরিক সহযোগিতা ছাড়া আমরা অন্যকিছু ভাবতে পারি না। আরো স্পষ্ট করে বলতে গেলে এর কোনো বিকল্প নেই।’

প্রেসিডেন্ট রুহানি আরো বলেন, ‘সৌদি আরব যদি মনে করে ইরান নয় বরং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইহুদিবাদী ইসরাইল তাদের প্রকৃত বন্ধু তাহলে সে ভুলের মধ্যে রয়েছে। ইরান বিষয়ে রিয়াদের এ ধরনের মনোভাব একটি কৌশলগত ভুল এবং ভুল হিসাব-নিকাশ।’

ইরানের সরকার ও জনগণ দাঁতভাঙা জবাব দেবে : খাতামি

ইরানের প্রভাবশালী আলেম আয়াতুল্লাহ আহমাদ খাতামি বলেছেন, ইরাক, সিরিয়া, ইয়েমেন ও লেবাননে সংঘটিত অপরাধযজ্ঞে সৌদি আরবের ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে। এখন দেশটি লেবাননের প্রধানমন্ত্রীকে ডেকে নিয়ে তার হাতে একটি লিখিত বক্তব্য ধরিয়ে দিয়েছে এবং তাকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে। এর মাধ্যমে সৌদি আরব সেখানে প্রকাশ্যে হস্তক্ষেপ করছে।

তিনি বলেন, সৌদি আরবে কয়েকজন প্রিন্সকে আটকের ঘটনা কেবলি লোকদেখানো। সৌদি আরবের অনভিজ্ঞ যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান ইরানের বিরুদ্ধে যেসব হুমকি ও বক্তব্য দিয়েছে সেগুলো বাস্তবায়ন করা হলে ইরানের সরকার ও জনগণ তাদেরকে দাঁতভাঙা জবাব দেবে।

ইরাকের কুর্দিস্তানকে বিচ্ছিন্ন করার ষড়যন্ত্রের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, সেখানে নতুন একটি ইসরাইল প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়ে গেছে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.