বিজরীর বাবুই পাখির বাসা

আলমগীর কবির

গুণী অভিনেত্রী, নৃত্যশিল্পী ও মডেল বিজরী বরকত উল্লাহ অভিনীত জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘বাবুই পাখির বাসা’ নাটকটির প্রচার শেষ হচ্ছে আগামীকাল। কাজী শাহীদুল ইসলাম রচিত ও সকাল আহমেদ পরিচালিত ‘বাবুই পাখির বাসা’র ১২৪তম পর্ব এটিএন বাংলায় প্রচার হবে আজ রাত ৯টা ১৫ মিনিটে। আগামীকাল একই সময়ে নাটকটির শেষ পর্ব প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা সকাল আহমেদ। এই ধারাবাহিকের মুন্নী চরিত্রটি দর্শকের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল এরই মধ্যে। ধারাবাহিকের একটি চরিত্র জনপ্রিয় হয়ে উঠলে সাধারণত নির্মাতা ও প্রযোজক চান নাটকটির প্রচার চালিয়ে যেতে। কিন্তু তারপরও আগামীকালই নাটকটির শেষ পর্ব প্রচার হবে। এই নাটকে বিজরী বরকত উল্লাহর বিপরীতে অভিনয় করেছেন শক্তিমান অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিম। এ দিকে আজ বিজরী বরকত উল্লাহর জন্মদিন। তবে দিনটিকে ঘিরে বিশেষ অনুষ্ঠানের বা বিশেষ কোনো আয়োজনের পরিকল্পনা নেই বিজরীর। বিজরী বলেন,‘ জন্মদিনটি আসলে একান্তই আমার একটি দিন। এই দিনটিতে আমি একদম ফ্রি থাকতে চাই। সাধারণত আমি নিজে দিনটিতে বিশেষ কোনো আয়োজন বা আনুষ্ঠানিকতা করি না। তবে আমার বাবা-মা আর দিনার দিনটিকে বিশেষায়িত করে তোলার চেষ্টা করেন। একেবারেই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেই সময় কাটে আমার। আর যেহেতু এই দিনটিতে আমার জন্মের মধ্য দিয়ে আমার মা মা হয়েছেন, তাই চেষ্টা করি দিনটিতে মায়ের সঙ্গে দেখা করার। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন যেন আল্লাহ আমাদের ভালো রাখেন, সুস্থ রাখেন।’ বিজরী বরকত উল্লাহকে আপাতত আর নতুন কোনো ধারাবাহিক নাটকে দেখা যাচ্ছে না। তবে তিনি জানান, নতুন বছরের শুরুতে তিনি নতুন বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকের কাজ শুরু করতে পারেন। এরই মধ্যে বেশ কয়েকজন নাট্যনির্দেশকের সঙ্গে কথাও হয়েছে।’ এ দিকে কিসলুর নির্দেশনায় বিজরীকে সর্বশেষ ‘গ্ল্যাক্সোজ’ ও ‘ম্যাগি’র বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করতে দেখা গেছে, যা বর্তমানে দেশের বিভিন্ন চ্যানেলে নিয়মিত প্রচার হচ্ছে। মাত্র আড়াই বছর বয়সে বাংলাদেশ টেলিভিশনে শিশুদের অনুষ্ঠানে ক্যামেরার সামনে নিজেকে দাঁড় করান বিজরী। তবে ১৯৮৮ সালে ‘সুখের ছাড়পত্র ’ নাটকে অভিনয় করে নিজেকে একজন অভিনেত্রী হিসেবে ছোট পর্দায় অভিষেক ঘটান। নাটকটি প্রযোজনা করেছিলেন তারই বাবা বরকতউল্লাহ। তবে এ নাটকে জাহানারা ইমামের ইচ্ছেতে অভিনয় করেছিলেন। তখন তিনি ক্লাস সিক্সে পড়তেন। নাটকটি বিটিভিতে প্রচার হওয়ার পর বিজরীর মুখের ‘ওহ বয়’ সংলাপটি সে সময় বেশ জনপ্রিয়তা পায়। ১৯৯৩ সালে পরিণত বয়সে বিজরী প্রথম অভিনয় করেন ধারাবাহিক নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’তে। প্যাকেজ নাটকে বিজরী প্রথম অভিনয় করেন আব্দুস সাত্তার পরিচালত ‘মেঘ কালো’ নাটকে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.