কোয়ালা  

আজ তোমরা জানবে কোয়ালা সম্পর্কে। এরা মেরুদণ্ডী প্রাণী। দেখতে অনেকটা বিড়ালের মতো। লিখেছেন কামাল হোসাইন
কোয়ালারা স্তন্যপায়ী প্রাণী। এরা মার্সুপিয়ালিয়া শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত। ক্যাঙারুর সমগোত্রীয়। কোয়ালাদের বৈশিষ্ট্য হলোÑ এজাতীয় মেয়ে প্রাণীদের পেটের চামড়া ভাঁজ হয়ে থলের মতো একটি অঙ্গ সৃষ্টি করে। একে মার্সুপিয়াম বলে। মার্সুপিয়াম থাকার কারণেই এদের মার্সুপিয়ালিয়া বলা হয়। এদের স্তনগ্রন্থি মার্সুপিয়ামের ভেতরে অবস্থান করে। বাচ্চা জন্মানোর পরপরই মার্সুপিয়ামের ভেতর চলে যায় এবং অনবরত মায়ের দুধ খেয়ে বড় হতে থাকে।
কোয়ালার মাথা অনেকটা ত্রিভুজাকৃতির হয়ে থাকে। এদের কান বেশ লম্বা ও দীর্ঘ লোমযুক্ত। এদের পায়ে নখরবিহীন থাবা থাকে, যা এদের গাছপালায় চলাফেরা করতে সাহায্য করে। এদের দুটো চোখ বেশ বড় বড় হয়। গাছেই সাধারণত থাকে এরা। তবে মাঝে মধ্যে মাটিতে নামতেও দেখা যায়। কোয়ালারা নিশাচর প্রাণীর মধ্যেও পড়ে। রাতের বেলা তারা গাছের ডালে ডালে ঘুরে খাবার সংগ্রহ করে। এরা প্রধানত উদ্ভিদভোজী। গাছের পাতা, ফুল, ফল ইত্যাদি এদের প্রিয় খাদ্য। প্রতি মওসুমে কোয়ালা একটি করে বাচ্চা প্রসব করে।
পরিণত না হওয়া পর্যন্ত কোয়ালার বাচ্চা মায়ের পেটের থলিতেই অবস্থান করে। মা কোয়ালা নিজের পেটের থলিতে রেখে বাচ্চা কোয়ালাকে নানা ধরনের বিপদ-আপদ থেকে রক্ষা করে। অস্ট্রেলিয়া মহাদেশে কোয়ালাদের বাস।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.