সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম ওয়াসার এমডি

পানি সঙ্কট নিরসনে আরো প্রকল্প হাতে নিতে হবে

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ বলেছেন, চট্টগ্রাম ওয়াসা বর্তমানে দৈনিক ৩০ কোটি লিটার সুপেয় ও নিরাপদ পানি নগরীতে সরবরাহ করছে। এর মধ্যে শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার থেকে ১৪ কোটি লিটার, মোহরা পানি শোধনাগার থেকে ৯ কোটি এবং বাকি ৭ কোটি লিটার গভীর নলকূপ থেকে উৎপাদিত হচ্ছে। ২০৪০ সালের মধ্যে চট্টগ্রামে পানির কোনো সঙ্কট হবে না। তবে এ জন্য আরো প্রকল্প হাতে নিতে হবে।
চট্টগ্রাম ওয়াসাসেবা মাস উপলক্ষে গতকাল চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। ১২ নভেম্বর থেকে ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে ওয়াসার এ সেবা মাস।
লিখিত বক্তৃতায় চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ বলেন, দীর্ঘ ২২ বছর পানি প্রকল্প হাতে না নিতে পারা এবং প্রকল্প হাতে নিলেও রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে প্রকল্প বাস্তবায়নে দীর্ঘসূত্রতা ছিল।
ওয়াসার এমডি বলেন, ২৯ বছর ধরে চট্টগ্রাম নগরীতে জনসাধারণ নিরাপদ সুপেয় পানি সঙ্কটে ভুগছে। জনগণকে কখনো রাত জেগে কখনো লাইন ধরে প্রয়োজনীয় পানি সংগ্রহ করতে হয়েছে। শেখ হাসিনা পানি শোধনাগার প্রকল্প চালু হওয়ায় এই সঙ্কট দূর হয়েছে। পাশাপাশি পানি সঙ্কট নিরসনে বর্তমানে চিটাগং ওয়াটার সাপ্লাই ইম্প্রুফভমেন্ট অ্যান্ড স্যানিটেশন প্রকল্প, কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প ও ভাণ্ডালজুড়ি পানি সরবরাহ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ওয়াসার বোর্ড সদস্য আবিদা আজাদ, সোলায়মান আলম শেঠ, তপন চক্রবর্তী, জাফর আহমেদ সাদেক, ওয়াসার উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (প্রশাসন) গোলাম হোসেন, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (অর্থ) বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য খোকন, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (প্রকৌশল) রতন কুমার সরকার প্রমুখ।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.