যশোরে পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

যশোর অফিস

যশোর কোতোয়ালি থানার সাত কর্মকর্তাসহ ১৬ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। গুমের অভিযোগে মঙ্গলবার যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন শহরের শংকরপুর পশু হাসপাতাল এলাকার তৌহিদুল ইসলাম ওরফে খোকনের স্ত্রী হিরা খাতুন। আদালতের বিচারক শাহিনুর রহমান অভিযোগ আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত প্রতিবেদন দিতে আদেশ দিয়েছেন। মামলার পরবর্তী শুনানি ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
মামলার আসামিরা হলোÑ কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এইচএম শহিদুল ইসলাম, আমির হোসেন, হাসানুর রহমান, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) রাজন গাজী, সেলিম মুন্সী, বিপ্লব হোসেন, সেলিম আহমেদ, কনস্টেবল আরিফুজ্জামান, রফিকুল ইসলাম, ড্রাইভার কনস্টেবল মো: রমজান, কনস্টেবল হাবিবুর রহমান, আবু বক্কার, ড্রাইভার কনস্টেবল মিজান শেখ, কনস্টেবল মাহমুদুর রহমান, রাজিবুল ইসলাম, টোকন হোসেন।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ৫ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে বাদির ছেলে সাঈদ ওরফে ভাইপো সাঈদ ও তার বন্ধু শাওন পৌর পার্কে বেড়াতে আসেন। দুপুর ১২টার দিকে পুলিশ তাদের আটক করে। খবর পেয়ে বাদিসহ আরো কয়েকজন কোতোয়ালি থানায় এলে তাদের ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়, সন্ধ্যা ৭টার দিকে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এইচএম শহিদুল ইসলাম ও আমির হোসেন বাদিকে ডেকে ছেলেকে ছাড়াতে দুই লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে ছেলেকে মেরে লাশ গুম করার হুমকি দেয়া হয়।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.