লেকহেড গ্রামার স্কুল ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খুলে দেয়ার নির্দেশ

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে রাষ্ট্রপক্ষ
নিজস্ব প্রতিবেদক

উগ্রবাদী কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগে বন্ধ হয়ে যাওয়া রাজধানীর লেকহেড গ্রামার স্কুলের ধানমন্ডি ও গুলশান শাখা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে ভবিষ্যতে ধর্মীয় উগ্রবাদসহ এজাতীয় যেকোনো অভিযোগের বিষয়ে সরকারের কার্যক্রমে স্কুল কর্তৃপকে সব ধরনের সহযোগিতা করারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
স্কুল বন্ধের বৈধতা নিয়ে রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো: আতাউর রহমান খানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল এ রায় দেন।
রায়ের পরে রিটকারীর আইনজীবী ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ লেকহেড গ্রামার স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত থাকার কোনো প্রমাণ আদালতে দাখিল করতে পারেনি। তাই আদালত বলেছেন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লেকহেড গ্রামার স্কুল খুলে দিতে হবে। আর সরকার যদি ওই স্কুলে জঙ্গি কার্যক্রমের কোনো অভিযোগের তদন্ত করতে চায়, তাহলে স্কুল কর্তৃপকে পূর্ণ সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছেন।
এ দিকে লেকহেড স্কুল খুলে দেয়ার হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করবে বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
প্রসঙ্গত, উগ্রবাদ কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতা, ধর্মীয় উগ্রবাদে উৎসাহ দেয়ার অভিযোগে গত ৫ নভেম্বর রাজধানীর লেকহেড গ্রামার স্কুল বন্ধে ব্যবস্থা নিতে আদেশ দেয় শিা মন্ত্রণালয়। পরে স্কুল ভবন সিলগালা করে দেয়া হয়। এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে স্কুল মালিক ও দুই শিার্থীর অভিভাবক পৃথক রিট আবেদন করেন। এর প্রাথমিক শুনানি শেষে গত ৯ অক্টোবর হাইকোর্ট রুল জারি করেন। রুলে লেকহেড গ্রামার স্কুলের গুলশান ও ধানমন্ডি শাখা বন্ধের আদেশ কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। একই সাথে স্কুল মালিককে স্কুল খোলা ও পরিচালনা করতে দিতে বিবাদিদের কেন নির্দেশ দেয়া হবে না এবং কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা ছাড়া শিার্থীদের সব ধরনের শিা কার্যক্রম চালু রাখতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়। শিাসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, শিা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব, ঢাকার জেলা প্রশাসক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিা বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ বিবাদিদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.