একটি অস্বাভাবিক সরকার প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র করছেন খালেদা জিয়া : তথ্যমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা

সাংবিধানিক পথে না গিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশে একটি ভূতের সরকার প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র করছেন বলে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, শেখ হাসিনার অধীনে উনি (খালেদা) নির্বাচন করবেন না বলেছেন। কখনো সহায়ক, কখনো নিরপে, কখনো নির্দলীয় সরকারের কথা বলেছেন। উনি কার্যত দেশে একটি ভূতের সরকারের অধীনে নির্বাচন করার কথা বলছেন। খালেদা জিয়া আসলে একটি অস্বাভাবিক সরকার প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের পাঁয়তারা করছেন।
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেয়া খালেদা জিয়ার ভাষণের প্রতিক্রিয়া জানাতে গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন না করার ঘোষণার মানে হচ্ছে তিনি বাংলাদেশকে সংঘর্ষের দিকে, অস্বাভাবিক পথে ঠেলে দেয়ার একটা চক্রান্তের চাল বুনলেন। তিনি সংবিধানের অধীনে নির্বাচন চান না। কার্যত ভূতের সরকারই প্রতিষ্ঠা করতে চান, যা বাংলাদেশের রাজনীতির জন্য দুর্ভাগ্যজনক হবে। সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি হলে কিভাবে মোকাবেলা করবেনÑ সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইনু বলেন, সাংবিধানিক এবং গণতান্ত্রিক কাঠামোর মধ্য দিয়ে যেভাবে অতীতে মোকাবেলা করেছি ঠিক একই পদ্ধতিতে সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করে যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তিনি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে খালেদা জিয়া অস্বাভাবিক পথে হেঁটেছেন, এখনো তিনি সেই পথেই আছেন। উনি বদলাননি। সে জন্যই পরিষ্কারভাবে বলেছেন, শেখ হাসিনার অধীনে, সংবিধানের অধীনে তিনি নির্বাচন করবেন না। তাই তিনি কখনো সহায়ক সরকার, কখনো নির্দলীয় সরকারের কথা বলছেন।
হাসিনার সরকার প্রতিহিংসার রাজনীতি করছেÑ খালেদা জিয়ার এমন অভিযোগের বিষয়ে ইনু বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে না, গণতান্ত্রিক রাজনীতি যাতে সুপ্রতিষ্ঠিত হয় সে জন্য কাজ করছে। যুদ্ধাপরাধীসহ বিভিন্ন অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা, ৯৩ দিনের আগুনযুদ্ধের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং তার কিছু সহকর্মী যারা সরাসরি মানুষ পোড়ানোর সাথে জড়িত তাদের বিচারের আওতায় আনা বিএনপির বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা নয়। খালেদা জিয়া এবং তার স্বামী জেনারেল জিয়াউর রহমান প্রতিহিংসার রাজনীতি করেছেন বলেও দাবি করেন তিনি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.