বিএনপির অবস্থা ভালো আ’লীগে ৩ ধারা

বরগুনা আসন-২

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বামনা-পাথরঘাটা-বেতাগীতে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন প্রধান দুইটি দলের নেতাকর্মীরা। মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন অনেকেই। জাতীয় সংসদ ১১০-বরগুনা-২ (পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগী) আসন একসময় বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত থাকলেও ২০০৮ সালের নির্বাচনে এটি দখলে নেয় আওয়ামী লীগ, যা আবার দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে বিএনপি। বিএনপি একজন শক্তিশালী নেতা পেয়েছেন তিনি হলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। এ কারণে এখানে বিএনপির অবস্থান শক্ত।
আওয়ামী লীগ তথা সরকারের দমন-নিপীড়ন, গুম-খুন, মামলা-হামলা, জেল-জুলুম, মিছিল, সভা-সমাবেশে বাধাসহ বিভিন্ন বিষয় মাথায় রেখে বিএনপির নেতাকর্মীরা হাতছাড়া হওয়া আসনটি আবার দখলে নেয়ার আশায় বুকবেঁধে মাঠে নেমেছেন। বিএনপি নেতাকর্মীদের ধারণা বরগুনা-২ আসনটি তরুণদের নেতৃত্বে আবার দখলে নিতে পারবেন তারা।
বরগুনার তিনটি আসন একত্র করে ২০০৮ সালে দু’টি আসন করা হয়। পাথরঘাটা-বামনা ও বেতাগী উপজেলা নিয়ে গঠিত ১১০ বরগুনা-২ আসন। বরগুনা-২ আসনে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ত্রি-ধারায় বিভক্ত রয়েছে। আর বিএনপি মনোনয়নের ক্ষেত্রে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন।
আওয়ামী লীগ : বরগুনা-২ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী দলীয় সংসদ সদস্য শওকত হাচানুর রহমান রিমন, আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় অর্থবিষয়ক সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, সাবেক এমপি গোলাম সবুর টুলুর কন্যা ফারজানা সবুর রুমকি, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ও বামনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো: হারুন অর-রশীদ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইতুল ইসলাম লিটু মৃধা প্রমুখ।
বিএনপি : বরগুনা-২ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী, বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস-চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট আইনজ্ঞ অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, যুবদলের কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো: মনিরুজ্জামান মনির, সুপ্রিম কোর্ট জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো: ছগির হোসেন লিওন ও লন্ডর প্রবাসী ওলামা দলের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শামীম আহম্মেদ প্রমুখ।
এ ছাড়া বরগুনা-২ আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সম্ভাব্য প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম সরোয়ার হিরু এবং বামনা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ মানজুরুর রব মুর্তাজা আহসান মামুন প্রমুখ।
বরগুনা-২ (পাথরঘাটা-বামনা-বেতাগী) আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী সংসদ সদস্য শওকত হাচানুর রহমান রিমন স্থানীয় রাজনীতিতে নানা কারণে দলীয় নেতাকর্মীদের বিরাগভাজন হলেও একজন সৎ ও আদর্শবান মানুষ হিসেবে পরিচিত। ২০০৩ থেকে ২০১৩ এই ১০ বছরে বিস্ময়করভাবে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়েন সংসদ সদস্য রিমন। ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে মেয়াদ শেষ হতে না হতেই উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের মেয়াদ শেষ হতে না হতেই গোলাম সবুর টুলু এমপির মৃত্যুতে উপনির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে জয়ের হ্যাটট্রিক করেন। তাই এবারো তিনি মনোনয়ন পাবেন বলে আশা করছেন বেশির ভাগ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী।
বরগুনা-২ আসনে বিএনপি থেকে অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনকে এবার মনোনয়ন দেয়া হবে বলে মনে করছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।
অপর মনোনয়নপ্রত্যাশী মো: মনিরুজ্জামান মনির বলেন, তিনি এলাকায় ‘ক্যারিশমেটিক’ নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি ১/১১’র সময় এলাকার তৃণমূল নেতাকর্মীদের খোঁজখবর নিয়েছেন। তাই দলের চেয়ারপারসন তাকে বিএনপি থেকে মনোনয়ন দেবেন বলে আশা করছেন তিনি।
এই আসনে বিএনপি থেকে অপর মনোনয়নপ্রত্যাশী অ্যাডভোকেট ছগির হোসেন লিওন বলেন, তিনি নিয়মিত গণসংযোগ করে আসছেন। দরিদ্রদের আর্থিক সহযোগিতা করছেন।
বরগুনা-২ আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সম্ভাব্য প্রার্থী গোলাম সরোয়ার হিরু। ইউপি চেয়ারম্যান থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান। এরপর ১৯৯৬ সালে দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন গোলাম সরোয়ার হিরু।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.