শিশুদের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগের শিশুপার্ক
শিশুদের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগের শিশুপার্ক

শিশুদের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগের শিশুপার্ক

আহমেদ ইফতেখার

ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগে অবস্থিত শাহবাগ শিশুপার্কটি শহীদ জিয়া শিশুপার্ক বা ঢাকা শিশুপার্ক হিসেবেও পরিচিত। ১৯৭৯ সালে ‘শহীদ জিয়া শিশুপার্ক’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। শিশুদের বিনোদনের জন্য পাবলিক সেক্টরে প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রথম এই শিশুপার্কটি ১৯৮৩ সাল থেকে বিনোদনকেন্দ্র হিসেবে যাত্রা শুরু করে।

ইট-পাথরের এই শহরে শিশুরা অনেকটা খাঁচাবন্দি হয়েই বড় হচ্ছে। বড় হওয়ার পাশাপাশি তাদের মানসিক পরিপক্বতার জন্য দরকার বাইরের পৃথিবীর আলো-বাতাস, এক টুকরো খোলা মাঠ। শিশু যদি আনন্দ নিয়ে কোনো কিছু শিখতে পারে তাহলে তা আর সারা জীবনেও ভোলে না। শেখার ব্যাপারটি বাদ দিলেও তাদের নির্মল বিনোদনের জন্য কতটা করতে পারছেন এ সময়ের অভিভাবকেরা। সেই সুযোগই তো তাদের কম। তবে তার মধ্য থেকেও শিশুদের সঠিকভাবে বেড়ে ওঠার জন্য অভিভাবকের দায়িত্বশীল থাকাটা জরুরি। তাই আপনার শিশুটিকে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান থেকে। তেমনই একটি বিনোদনকেন্দ্র শাহবাগের শিশুপার্ক।

শাহবাগের শিশুপার্কটি ঢাকার সবচেয়ে প্রাচীন শিশুপার্ক। এর সবচেয়ে যে বিষয়টি আপনাদের ভালো লাগবে তা হলো এখানে সপ্তাহে একটি দিন সুবিধাবঞ্চিত ও অসচ্ছল শিশুদের বিনামূল্যে প্রবেশ করতে দেয়া হয়। সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের উদ্যোগে ১৫ একর জায়গার ওপর গড়ে ওঠা এ পার্ক তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব পালন করছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ঢাকা সিটি করপোরেশন। শিশুপার্কটিতে ১২টি রাইড রয়েছে। যেখানে একটি খেলনা ট্রেন, একটি গোলাকার মেরি গো রাউন্ড রাইড ও একাধিক হুইল রাইড রয়েছে। ১৯৯২ সালে এ পার্কে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে সৌজন্য হিসেবে একটি জেট বিমান দেয়া হয়। ঢাকার এই শিশুপার্কে প্রতিদিন ছয় হাজারের অধিক মানুষ এসে থাকে। আর ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহার মতো আনন্দঘন সময়ে তা কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

ঢাকা ও ঢাকার আশপাশের মানুষ সপরিবারে একটু স্বস্তি ও আনন্দের জন্য আসে শাহবাগের শহীদ জিয়া শিশুপার্কে। কর্মব্যস্ত শহর রাজধানীতে যারা বসবাস করেন তারা খুব সহজেই অবসর বা ছুটির দিনে প্রিয় সন্তানদের নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন ঢাকার প্রাণকেন্দ্র শাহবাগে অবস্থিত শহীদ জিয়া শিশুপার্কে।

স্বল্প সময় ও অল্প খরচে বিনোদনের জন্য কিছুটা সময় কাটিয়ে আসতে পারেন এই শিশুপার্ক থেকে। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের উত্তর পাশে গড়ে ওঠা শিশুপার্ক শিশু-কিশোরদের আনন্দের অন্যতম কেন্দ্র। টয় ট্রেন, ফাইটার জেট, মেরি গো রাউন্ড, ফেরিস হুইল স্কেটিং রিংক ছাড়াও এখানে আরো রয়েছে বেশ কিছু চমকপ্রদ রাইড।

খোলা ও বন্ধ : প্রতি শুক্রবার পার্কটি ২.৩০-৭.৩০টা পর্যন্ত খোলা থাকে। রোববার ছাড়া শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার ২.০০-৭.০০টা পর্যন্ত রাইডগুলো চালু থাকে। প্রতি রাইড ৮ টাকা হারে ৬টি রাইড ব্যবহার করতে দেয়া হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.