নতুন বছরে আরো বেপরোয়া হবে হ্যাকাররা

আহমেদ ইফতেখার

২০১৭ সালে বিশ্বব্যাপী বড় ধরনের কয়েকটি সাইবার আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। এর মাধ্যমে হ্যাকাররা বিপুল তথ্য হাতিয়ে নেয়া এবং মোটা অঙ্কের মুক্তিপণ আদায় করেছে। সাইবার নিরাপত্তা গবেষকদের ধারণা, ২০১৮ সালে হ্যাকাররা আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠবে। সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ম্যাকাফির তথ্যমতে, চলতি বছর র‌্যানসমওয়্যার ছড়িয়ে সাইবার আক্রমণের ঘটনাগুলো থেকে হ্যাকাররা বিপুল সংখ্যক গ্রাহক তথ্য এবং অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। তবে আরো বড় ধরনের সাইবার আক্রমণ চালাতে এরই মধ্যে নতুন কৌশল এবং ‘ব্যবসায় মডেল’ উন্নয়ন করেছে হ্যাকাররা। 

ম্যাকাফির গবেষকদের ভাষ্য, চলতি বছরজুড়ে বড় কয়েকটি সাইবার আক্রমণের ঘটনার পর বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে। এর ফলে র‌্যানসমওয়্যার ছড়িয়ে সাইবার আক্রমণ চালানো কঠিন হয়ে পড়েছে। কাজেই হ্যাকাররা নতুন কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে আক্রমণের পরিকল্পনা করবে, যা কম্পিউটার নেটওয়ার্কের নিয়ন্ত্রণ নেয়া এবং ক্ষতি সাধন করতে পারে।
ম্যাকাফির প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা (সিটিও) স্টিভ গ্রোবম্যান বলেন, চলতি বছর র‌্যানসমওয়্যার ছড়িয়ে যে সাইবার আক্রমণের ঘটনাগুলো ঘটেছে, তা মনে রাখা উচিত। শুধু ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার নেটওয়ার্কই নয়, র‌্যানসমওয়্যার আক্রমণ থেকে রেহাই পায়নি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরাও।

বৈশ্বিক সাইবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের সাথে সাথে হ্যাকাররাও তাদের কৌশল পরিবর্তন করবে এবং আরো উন্নত হ্যাকিং টুল ব্যবহার করবে। ম্যাকাফির প্রধান বিজ্ঞানী রাজ সামানি বলেন, চলতি বছর সংঘটিত সাইবার আক্রমণের ঘটনাগুলো দেখিয়ে দিচ্ছে হ্যাকিং কিভাবে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করা সহজ। জাতীয়, রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক প্রতিপক্ষকে পক্ষাঘাতগ্রস্ত করতে এ ধরনের আক্রমণ চালিয়ে হাতিয়ে তথ্য বিক্রি করে দেয়া হতে পারে। 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.