বিশ্বসাহিত্যের টুকিটাকি

মতিন মাহমুদ

গণকোর্ট প্রাইজ পেলেন এরিক ভিলারঁ
ফরাসি লেখক এরিক ভিলারঁ এ বছরের সে দেশের সবচেয়ে মর্যাদাবান সাহিত্য পুরস্কার গণকোর্ট প্রাইজে ভূষিত হয়েছেন। গত ৬ নভেম্বর তার লেখা উপন্যাস ‘লর্চার দ্যু জ্যুর (দি অ্যাজেন্ডা)-এর জন্য এ পুরস্কার দেয়া হয়। দীর্ঘ দিনের ঐতিহ্য হিসেবে ওই দিন ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের একটি ক্যাফেতে তার হাতে এ পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। ‘দি অ্যাজেন্ডা’ নামক এই উপন্যাসে নাৎসিদের কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে। তিনি এতে দেখিয়েছেন নানা বাণিজ্যিক স্বার্থে নাৎসিদের বেড়ে উঠতে দেয়া হয়েছে। সে সময়ের বাণিজ্যের উত্তরাধিকার এখনো বহন করে চলেছে কেউ কেউ। তবে এ পুরস্কার ঘোষণার পর কোনো কোনো পক্ষ থেকে সমালোচনা করা হয়। কেননা এই বইয়ের প্রকাশনা সংস্থাটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ফরাসি সংস্কৃতিমন্ত্রী ফাঁসোয়া নাইসেন। প্রকাশনা সংস্থাটি এই বইকে নাৎসি বিষয়ে দীর্ঘ অনুসন্ধান ও গবেষণার ফল বলে বর্ণনা করে।

 

তুর্কি লেখিকা পেলেন এডিনবরা ফেস্টিভাল অ্যাওয়ার্ড
তুর্কি ঔপন্যাসিক এসি তেমেলকুরান ২০১৭ সালের এডিনবরা ইন্টারন্যাশনাল বুক ফেস্টিভালের ‘ফার্স্ট বুক অ্যাওয়ার্ডে’ ভূষিত হয়েছেন। প্রতি বছর আগস্ট মাসে স্কটল্যান্ডের রাজধানী এডিনবরায় এই বই উৎসব হয়ে থাকে। উৎসব উপলক্ষে জমা দেয়া ইংরেজিতে অনূদিত প্রথম উপন্যাসের জন্য এই পুরস্কার দেয়া হয়। এ বছর নতুন লেখকদের এমন ৫০টি উপন্যাস জমা পড়ে। সেখান থেকে উৎসবে আসা দর্শক ও বইয়ের পাঠকের মতামতের ভিত্তিতে শীর্ষ স্থানে উঠে আসে এসি তেমেলকুরানের উপন্যাস ‘ওমেন হু ব্লো অন নটস’। এটি তিউনিসিয়া থেকে লেবাননে পাড়ি জমানো চারজন নারীর কাহিনীÑ যারা অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে দেশ ছাড়তে বাধ্য হন। বলতে গেলে যুদ্ধ থেকে পালিয়ে বাঁচা আরব শরণার্থীদের কাহিনীই এটি। গত মাসে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়। তেমেলকুরান বিবিসির সাথে যুক্ত সাংবাদিক এবং লেখিকা হিসেবে নিজ দেশে জনপ্রিয়। তার নিবন্ধ জার্মানির দার স্পিজেল, যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক টাইমস ও ব্রিটেনের গার্ডিয়ানে প্রকাশিত হয়। এটি তার দ্বিতীয় উপন্যাস। তবে ইংরেজিতে অনূদিত প্রথম বই। তুরস্কে এর এক লাখ ২০ হাজার কপি বিক্রি হয়েছে। এ নিয়ে অষ্টমবারের মতো ‘ফার্স্ট বুক অ্যাওয়ার্ড’ দেয়া হলো। নতুন লেখকদের উৎসাহিত করতে এ পুরস্কারের আয়োজন করা হয়েছে বলে উৎসব কমিটির পরিচালক জানিয়েছেন।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.