বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় রাসূল সা.এর আদর্শের বিকল্প নেই : শিবির

ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেছেন, আল্লাহ তায়ালা বিশ্ব মানবতার মুক্তির জন্যই রাসূল সা:কে দুনিয়াতে প্রেরণ করেছিলেন। তিনি ছিলেন ধর্ম, বর্ণ, গোত্র ও পেশা নির্বিশেষে সবার জন্যই অনুকরণীয় ও অনুসরণীয় আদর্শ। আজও বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুহাম্মদ (সা:) এর আদর্শের বিকল্প নেই।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবির ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত সিরাতুন্নবী সা. উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

শাখা সভাপতি জামিল মাহমুদের সভাপতিত্বে ও অফিস সম্পাদক তালহা যোবাইয়ের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগরী বায়তুলমাল সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমানসহ মহানগরী বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

শিবির সেক্রেটারি বলেন, বিশ্ব মানবতার কল্যাণ ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় রাসূল সা. এর মত উদাহরণ আর নেই। তিনি ছিলেন সব মানুষের জন্য ন্যায়-ইনসাফের প্রতীক। মানবজাতির জন্য সর্বকালের সর্বোত্তম অনুসরণীয় আদর্শ। মহান আল্লাহ তায়ালা বলেন, রাসূল সা. এর মধ্যে রয়েছে উত্তম আদর্শ (সূরা আহযাব, আয়াত-২১। তিনি তার মহানুভবতা, সহনশীলতা, অধ্যবসায়, দৃঢ়তা, ধৈর্য ও নিষ্ঠার সাথে আল কুরআনের আদর্শ প্রতিষ্ঠার মহান দায়িত্ব পালন করেছেন। আর এজন্য তাকে অবর্ণনীয় জুলুম-নির্যাতনও ভোগ করতে হয়েছে। ইসলামকে প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে নির্মমভাবে নির্যাতিত ও রক্তাক্ত হতে হয়েছিল। মূলত রাসুল (সা.) আইয়ামে জাহেলিয়াতের অন্ধকার ও তমসার বিপরীতে সত্য এবং ন্যায়কে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। সমাজে অবহেলিত-নির্যাতিত, সুবিধা বঞ্চিত ও দুঃখী মানুষের সেবা, মানবতাবোধ, পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন, পরমতসহিষ্ণুতা, দয়া, নারী জাতির মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় মহানবী (স)-এর আদর্শ অতুলনীয় ও অদ্বিতীয়। সে জন্যই তিনি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব হিসেবে অভিষিক্ত। মহান আল্লাহ তায়ালা বলেন, হে মুহাম্মদ! আমি তোমাকে পাঠিয়েছি দুনিয়াবাসীর রহমত স্বরুপ (সূরা আম্বিয়া, আয়াত-১০৭)। বিজ্ঞপ্তি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.