পুঁজিবাজারে আসতে চায় লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লি.

সূচক ও লেনদেনের ধারাবাহিক অবনতি
অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

সূচক ও লেনদেনের ধারাবাহিক অবনতি অব্যাহত রয়েছে পুঁজিবাজারে। গতকাল সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে অনেকটা একই চিত্রই দেখা গেছে দেশের দুই পুঁজিবাজারে। বুধবারের মতো গতকালও বাজারগুলোতে সব ক’টি সূচকের অবনতি হয়। কমেছে বাজারগুলোর লেনদেনও। সূচকের উন্নতি দিয়ে দিন শুরু করলেও পরে বিক্রয়চাপে পড়া বাজারগুলো শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি। এতে উভয় বাজারেই লেনদেন হওয়া বেশির ভাগ কোম্পানির দরপতন হয়।
প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স গতকাল ১৮ দশমিক ০৭ পয়েন্ট হ্রাস পায়। ডিএসই-৩০ ও শরিয়াহ সূচকের অবনতি হয় যথাক্রমে ৭ দশমিক ৪০ ও ১ দশমিক ৩৮ পয়েন্ট। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক ও সিএসসিএক্স সূচকের অবনতি হয় যথাক্রমে ৪৩ দশমিক ৫২ ও ২৯ দশমিক ২৭ পয়েন্ট। এখানে সিএসই ৫০ ও শরিয়াহ সূচক হারায় যথাক্রমে ৫ দশমিক ৫৭ ও ১ দশমিক ০৯ পয়েন্ট।
সূচকের মতো অবনতি হয় দুই পুঁজিবাজারের লেনদেনেরও। ঢাকা শেয়ারবাজারে গতকাল ৫১৭ কোটি টাকার লেনদেন নিষ্পত্তি হয়, যা আগের দিন অপেক্ষা ৬৭ কোটি টাকা কম। বুধবার ডিএসইর লেনদেন ছিল ৫৮৪ কোটি টাকা। চট্টগ্রাম শেয়ারবাজারে ২৭ কোটি টাকা থেকে ২৩ কোটিতে নেমে আসে লেনদেন।
এ দিকে ব্যবসা সম্প্রসারণে পুঁজিবাজারে আসতে চায় দেশের লুব্রিক্যান্টস বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান লুব-রেফ (বাংলাােদশ) লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসা সম্প্রসারণের প্রয়োজনে পুঁজিবাজার থেকে ১৪৪ কোটি টাকা তুলতে চায়। উত্তোলিত টাকার ৬৮ শতাংশ অর্থই ব্যবসা সম্প্রসারণে ব্যয় করা হবে। আর এ ক্ষেত্রে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতেই বাজারে আসার আগ্রহ প্রতিষ্ঠানটির।
সম্প্রতি অনুষ্ঠিত আইপিওর রোড শোতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এর অংশ হিসেবে রোড শোর মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে কোম্পানিটির বিভিন্ন দিক ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা তুলে ধরা হয়। রাজধানীর রেডিসন হোটেলে এই রোড শো অনুষ্ঠিত হয়।
নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমতি পেলে বিডিংয়ের মাধ্যমে প্রথমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করবে। পরে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করা হবে। ১৪৪ কোটি টাকা সংগ্রহের জন্য যত শেয়ার বিক্রি করা প্রয়োজন, তত শেয়ার ইস্যু করবে কোম্পানিটি। রোড শোতে উল্লেখ করা হয়, আইপিওর মাধ্যমে উত্তোলিত অর্থ থেকে ৪৬ কোটি টাকায় ব্যাংক ঋণ পরিশোধ করা হবে। সাউথইস্ট ব্যাংকের চট্টগ্রামের জুবিলি শাখায় এই ঋণ পরিশোধ করা হবে।
কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা। কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ১৫০ কোটি টাকা। আর পরিশোধিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা।
আর্থিক প্রতিবেদনে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায়, ৩১ অক্টোবর ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস হয়েছে ৪৬ পয়সা। এ সময় সম্পদ মূল্যায়ন করে কোম্পানির শেয়ারপ্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ২৮ টাকা ৫৯ পয়সা। আলোচ্য বছরে কর-পরবর্তী মুনাফা হয়েছে তিন কোটি ২১ লাখ ২৬ হাজার টাকা।
লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেড লুব্রিক্যান্টস পণ্যের ব্যবসা করে। রেলওয়ে, পাওয়ার প্লান্টস, অটোমোবাইলস, পরিবহন, মেরিন, বিমান ও ম্যানুফ্যাকচারিংয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট রয়েছে কোম্পানিটির ব্যবসা। কোম্পানির মোট উৎপাদনের মধ্যে রয়েছে ৬১ দশমিক ৫০ শতাংশ লুব-বেন্ডিং অয়েল, ১০ দশমিক ৪৬ শতাংশ ইঞ্জিন অয়েল, থার্মো অয়েল ১০ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং অন্যান্য লুব অয়েল ১৭ দশমিক ১১ শতাংশ।
আগের দিনগুলোর মতো গতকালও সূচকের উন্নতি দিয়ে দিন শুরু করে দেশের দুই পুঁজিবাজার। কিন্তু সূচকের ঊর্ধ্বমুখী এ প্রবণতা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে ডিএসইএক্স সূচকের ৬ হাজার ২৬৬ দশমিক ৩ পয়েন্ট থেকে দিন শুরু করে বেলা ১১টার দিকে সূচকটি পৌঁছে যায় ৬ হাজার ২৭৮ পয়েন্টে। ১১টার পরই বিক্রয়চাপে পড়ে বাজারটি। দিনের বাকি সময় এ চাপ থেকে আর বেরিয়ে আসতে পারেনি বাজারটি। দিনশেষে ১৮ দশমিক ০৭ পয়েন্ট হারিয়ে ৬ হাজার ২৪৮ দশমিক ২২ পয়েন্টে স্থির হয় ডিএসই সূচক।
গতকাল দুই পুঁজিবাজারের বেশির ভাগ খাতেই ছিল মিশ্র আচরণ। তবে আগের দিনের মতো ব্যাংক ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাত বড় ধরনের দরপতনের শিকার হয় গতকাল। অন্য দিকে বীমা খাতের বেশির ভাগ কোম্পানি গতকাল আগের দিনের হারানো দর ফিরে পায়। অন্যান্য খাতের মধ্যে বেশি দরপতন হয় সিমেন্ট, তথ্যপ্রযুক্তি, সিরামিকস ও সেবা খাতে। আবার খাদ্য, জ্বালানি ও টেক্সটাইল খাতের বেশির ভাগ কোম্পানির মূল্যবৃদ্ধি হয়। ঢাকা শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া ৩২৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ১৩৮টির মূল্যবৃদ্ধির বিপরীতে দর হারায় ১৪৫টি। অপরিবর্তিত ছিল ৪৬টির দর। অন্য দিকে চট্টগ্রাম শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া ২৪২টি সিকিউরিটিজের মধ্যে ৯৬টির দাম বাড়ে, ১০৮টির কমে ও ৩৮টির দাম অপরিবর্তিত থাকে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.