ডিসিপ্লিনে কাটছাঁট করবে বিওএ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৮ ডিসেম্বর একযোগে ৬৪টি জেলায় উদ্বোধন হবে যুব গেমসের। ৬ জানুয়ারি থেকে ৭ দিনব্যাপী জেলাপর্যায়ে এবং সব ক’টি বিভাগে একযোগে ১০ দিনব্যাপী যুব গেমস শুরু হবে। আগামী ৯ মার্চে গড়াবে জাতীয়পর্যায়ের বাংলাদেশ যুব গেমস। যুবসমাজকে মাঠমুখী করতে উপজেলা পর্যায় থেকে প্রস্তুতি শুরুর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। জেলা ও বিভাগীয়পর্যায়ের বাংলাদেশ যুব গেমস পরিচালনা করবে জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা। জেলা, বিভাগ এবং জাতীয়Ñ প্রতিটি ধাপে সেরাদের নিয়ে দল গঠন করবে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। প্রতিটি জেলায় পদক পেতে পারে এমন ডিসিপ্লিনেই নাম পাঠাতে বলেছে বিওএ। শুধু অ্যাথলেট বাড়ানোর আশায় কিংবা অন্য কোনো সুবিধা আদায়ের জন্য ডিসিপ্লিনের সংখ্যা বৃদ্ধি করলে সেটি কাটছাঁট করবে বিওএ। এমনটিই জানালেন বিওএ উপমহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু।
তার কথায়, ‘প্রতিটি পর্যায়ে অংশগ্রহণ ও প্রস্তুতির জন্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করছে বিওএ। জেলা, বিভাগ ও জাতীয়পর্যায়ে প্রস্তুতি ও প্রতিযোগিতা চলাকালে ক্রীড়াবিদদের আহার, বাসস্থান ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বিওএ নিশ্চিত করবে। যে জেলায় যে ডিসিপ্লিনের খেলোয়াড় ভালো আছে বা পদক পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সেসব ডিসিপ্লিনেই অন্তর্ভুক্তির কথা বলা হয়েছে। শুধু অ্যাথলেট ও ডিসিপ্লিন বাড়ালেই আমরা সেটি গ্রহণ করব না। প্রয়োজন অনুযায়ী ছেঁটে ফেলা হবে।’
এ দিকে জেলাগুলো থেকে বলা হচ্ছে, ইয়ুথ গেমস উপলক্ষে কিছু প্রতিযোগী স্থানীয় বাছাইয়ে উঠে এসেছে, যারা জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে ভালো করতে পারেনি। তাই বলে এখন কি সে খেলতে পারবে না? যে প্রতিযোগী ২০১৪ সালে বয়স ছিল ১৪ বছর এখন সে ১৭ বছরের যুবক। তার গতি, শারিরিক গঠন, স্কিল সবই পরিপূর্ণ ও পদকের আশা রয়েছে। বিওএ যদি অংশ নেয়ার সুযোগই না দেয় তাহলে স্কিল প্রদর্শন করার কোণ সুযোগ থাকবে না।
কিসের ভিত্তিতে বিওএ জেলাগুলোর অ্যাথলেট বা ডিসিপ্লিন নির্বাচন করবেÑ এমন প্রশ্নে মিকু বলেন, ‘২০১৩ সালে বাংলাদেশ গেমস থেকে শুরু করে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ফলাফলের ভিত্তিতে সেটি নির্বাচন করা একেবারে সহজ। গত চার বছরে বাংলাদেশ গেমস ছাড়া কমপক্ষে তিনটি জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ হয়েছে। ডিসিপ্লিন অনুযায়ী সেটি চেক করলেই সব বেরিয়ে যাবে। মনে করেন কোনো একটি জেলা জুডো খেলে না; কিন্তু ইয়ুথ গেমসে সেটির নাম দিয়ে দিলো, তাহলে কি বোঝা যাবে না! আমরা জেলা ও বিভাগীয় সেরাদের নিয়েই একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক গেমস উপহার দিতে চাই। অ্যাথলেটদের মধ্যে রেজাল্টের ফারাক যেন ১৮-২০-এ থাকে, ১৫-২০-এ নয়।’
যুব গেমসের (অনূর্ধ্ব-১৭) এ আসরে থাকবে ২১টি ডিসিপ্লিন। সেগুলো হলোÑ ফুটবল, ভলিবল, বাস্কেটবল, হকি, কাবাডি, হ্যান্ডবল, অ্যাথলেটিক্স, সাঁতার, ব্যাডমিন্টন, শুটিং, টেবিল টেনিস, স্কোয়াশ, কারাতে, তায়কোয়ানডো, কুস্তি, জুডো, উশু, ভারোত্তোলন, বক্সিং, আরচারি ও দাবা। প্রতিটিপর্যায়ে সেরা তিন ক্রীড়াবিদকে প্রণোদনা এবং বিওএ’র প্রশংসাপত্র দেয়া হবে।

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.