সে নে গা লে র রূ প ক থা

হায়েনার মাথায় শিং

রূপান্তর : হাসান হাফিজ

(গত দিনের পর)
হরিণ তার লাফ ঝাঁপ বন্ধ করে থামে একটু ক্ষণ। হায়েনাকে জানায়,
ওমা, খবর পাওনি কিছু? আজ রাতেই তো সেই পার্টি হবে রে ভাই। টানা এক মাস ধরে জোগাড় যন্তর চলছে তার। নাচ-গান, ফুর্তি-ফার্তার অনেক ব্যবস্থা থাকবে। অনেক মজা, হৈ হুল্লোড় হবে সেখানে। আজ সন্ধ্যা গড়ালেই পার্টি শুরু হবে। চলবে রাতভর। সবাই অপেক্ষা করছে, কখন সন্ধ্যা হবে। রাতভর নাচ গান, হইচই। সুস্বাদু সব খাবার থাকবে। সবাই খেতে পারবে, যার যতটা খুুশি।
হায়েনার জিভ চুলবুল করে ওঠে এমনধারা রসালো বিবরণ শুনে। সে বলে,
ভাই হরিণ। একটা কথা জানতে চাই তোমার কাছে। আমি কি সে পার্টিতে যেতে পারব না? কী বলো তুমি?
হরিণ তার মুখটা সাধ্যমতো শুকনো করে বলে,
না রে ভাই। সেটি হওয়ার কোনো উপায় যে নেই। যেসব জন্তুর মাথায় শিং আছে, কেবল তারাই আজকের ওই পার্টিতে যোগ দেবে। অন্য কেউ নয়।
বলে তিড়িং বিড়িং করে লাফ দেয় হরিণ। ঝটপট ছুটে যায় নিজের গন্তব্যের দিকে।
(চলবে)

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.