ভাণ্ডারিয়ায় সন্ত্রাসীকে কুপিয়ে হত্যা

পিরোজপুর সংবাদদাতা

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার গৌরিপুর ইউনিয়নের পূর্ব মাটিভাঙ্গা গ্রামে বুধবার রাতে রাসেল খান (৩২) নামে এক সন্ত্রাসীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় লিটন হাওলাদার নামে এক যুবককে সন্দেহজনকভাবে আটক করেছে। সে মাটিভাঙ্গা গ্রামের সুলতান হাওলাদারের ছেলে। নিহত রাসেল ঝালকাঠী জেলার কাঁঠালিয়া উপজেলার শৌলজালিয়া ইউনিয়নের উত্তর বলতলা গ্রামের মৃত বারেক খানের ছেলে।
ভাণ্ডারিয়া উপজেলার গৌরিপুর ইউনিয়নের পূর্ব মাটিভাঙ্গা ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল কালাম জানান, রাত ৮টায় উত্তর বলতলা গ্রামের নতুন বাজার থেকে রাসেল বাড়ি ফিরছিল। এ সময় একদল লোক তাকে ধরে পূর্ব মাটিভাঙ্গা জলিল হাওলাদারের বাড়ির সামনে ইটের রাস্তার ওপর কুপিয়ে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়।
ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন জানান, রাসেল ও তার সহযোগীরা ২০১৬ সালে গৌরিপুর ইউনিয়নের পূর্ব মাটিভাঙ্গা গ্রামের সুলতান হাওলাদারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। যে ঘটনায় থানায় মামলাও হয়। এলাকাবাসী জানান, রাসেল জমি দখলসহ টাকার বিনিময়ে সন্ত্রাসী কাজ করত।
ঝালকাঠীর কাঁঠলিয়া থানার ওসি শওকত আনোয়ার জানান, রাসেল খানের বিরুদ্ধে কাঁঠলিয়া থানায় একটি ডাকাতি, একটি দস্যুতাসহ আটটি মামলা রয়েছে। সে পুলিশের তালিকাভুক্ত ডাকাত। নিহত রাসেল খানের দুই ভাইও সন্ত্রাসী। তবে একটি সূত্র জানিয়েছে, মাদক ব্যবসায় নিয়ে কোন্দলের কারণে রাসেলকে প্রতিপক্ষরা হত্যা করেছে। লাশ ভাণ্ডারিয়া থানা পুলিশ উদ্ধার করে পিরোজপুর মর্গে পাঠিয়েছে।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.