মোহামেডানকে হারানোর পর অপেক্ষাকৃত দুর্বল ব্রাদার্সের এমন উৎসব : নয়া দিগন্ত
মোহামেডানকে হারানোর পর অপেক্ষাকৃত দুর্বল ব্রাদার্সের এমন উৎসব : নয়া দিগন্ত

হার দিয়ে শেষ মোহামেডানের

মোহামডোন ০:১ ব্রাদার্স (শান্ত)
ক্রীড়া প্রতিবেদক

ম্যাচ শেষেই দ্রুত মাঠ ছেড়ে চলে গেলেন মোহামেডান ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু। কোচ রাশেদ পাপ্পুকেও পাওয়া গেল না। মাঠ ত্যাগ করলেন অধিনায়ক এমিলিও। জিতলে অবশ্য এই দৃশ্য থাকত না। তবে বিপরীত দৃশ্য ব্রাদার্স ইউনিয়ন শিবিরে। সার্বিয়ান কোচ নিকোলা ভিক্টোরভিচ মজা করছিলেন বল বয়দের সাথে। ফুটবলাদের মধ্যে স্বস্তির হাসি। বেশ খানিক্ষণ মাঠে থাকলেন খেলার পর। আসলে মোহামেডানের তো মুখ দেখানোর উপায় নেই। বাজেভাবে প্রিমিয়ার লিগ খেলে এএফসি কাপে খেলার সুযোগ নষ্ট করার পর কাল ব্রাদার্সের কাছে হার দিয়ে লিগ শেষ করল তারা। যদিও এতে তাদের অবস্থানের কোনো হেরফের হয়নি। ১২ দলের মধ্যে পঞ্চম স্থান তাদের। গতবারের দশম স্থানের তুলনায় এবারের এই অবস্থান অবশ্যই উন্নতি বলতে হবে। তবে সেটাও কি মানায় বড় ও দর্শক প্রিয় দলটির জন্য। যাদের জেতার কথা শিরোপা। কিংম্বা থাকার কথা এই লড়াইয়ে। কাল ১-০ গোলের জয় দিয়ে সাইফ পাওয়ার ব্যাটারি প্রিমিয়ার লিগ শেষ করে ব্রাদার্স এখন সাত নম্বরে। আজ শেখ রাসেলের কাছে আরামবাগ হারলে বা ড্র করলে সপ্তমই হবে গোপীবাগের দলটি। ২২ খেলায় ২২ পয়েন্ট তাদের। আরামবাগের সংগ্রহ ২০। মোহামেডানের ঝুলিতে ৩২ পয়েন্ট।
ম্যাচে জয়সূচক গোলটি হয় ২৬ মিনিটে। আল আমিনের ক্রস থেকে ফ্লিকে বল গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ লিটনের মাথার ওপর দিয়ে জালে পাঠান আরিফুল ইসলাম শান্ত। শান্ত এর আগেই সুযোগ নষ্ট করেন আরেকটি। মোহামেডান তেমন কোনো চান্সই পায়নি। ইনজুরি টাইমে অগাস্টিন ওয়ালসনের ফ্রি-কিক ক্রসবারে বাতাস দিয়ে যাওয়াটাই একমাত্র সুযোগ। হারের কারণ ব্যাখ্যা করে মোহামেডান কোচ রাশেদ মাহমুদ পাপ্পু বলেন, ‘জয় দিয়েই লিগের সমাপ্তি চেয়ছিলাম। তা হয়নি। শেষ খেলা বলে ফুটবলারদের মধ্যে সিরিয়াসনেসের অভাব ছিল। তার ওপর গোলরক্ষকের ভুলে গোল খেয়েছি।’ ব্রাদার্স কোচ নিকোলা বেশ খুশি দলের পারফরম্যান্সে। তার মতে, আমি যখন দলের দায়িত্ব নিই তখন ছিল মাত্র দুই পয়েন্ট। প্রথমপর্ব শেষে দল ছিল তলানিতে। সেখান থেকে আমরা এখন সপ্তম। খেলোয়াড়রা চমৎকার ফুটবল খেলায় দল আজ এই অবস্থানে। এই খেলায় আমরা মোহামেডানের মতো সিনিয়র ও অভিজ্ঞ ফুটবলার-সম্পন্ন দলকে হারিয়েছি।
তবে স্বাধীনতা কাপে এই কোচ দলের দায়িত্বে থাকবেন কি না সন্দেহ। জানান, আমার সাথে চুক্তি শেষ। এখন পরবর্তী আসরের জন্য আমাকে রাখবে কি না এ নিয়ে ক্লাবের সাথে কথা বলতে হবে। আমি অবশ্য থাকতে চাই।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.