উৎপাদনমুখী নানা প্রকল্প দেশবন্ধু গ্রুপের

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান দেশবন্ধু গ্রুপ নতুন বছরের শুরুতেই ব্যবসা সম্প্রসারণ করছে। চলমান শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর উৎপাদনক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি নতুন শিল্প স্থাপন অব্যাহত রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। এতে করে বেসরকারি খাতে ব্যাপক অবদানসহ কর্মসংস্থান, উন্নত মানের পণ্য উৎপাদন ও রফতানিতে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে দেশবন্ধু গ্রুপ আরো অগ্রসর হবে বলে আশা করছেন কর্তৃপক্ষ।
দেশবন্ধু গ্রুপের নরসিংদীর চরসিন্দুর পলাশ শিল্প এলাকায় অবস্থিত দেশবন্ধু সুগার মিলস লিমিটেড, দেশবন্ধু পলিমার লিমিটেড, দেশবন্ধু ফুড ও বেভারেজ লিমিটেড এবং দেশবন্ধু ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুটে চলছে কর্মযজ্ঞ।
দেশবন্ধু গ্রুপের প্রকল্প পরিচালক প্রভাষ চক্রবর্তী বলেন, দেশবন্ধু চিনিকলটি পুরনো এবং দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী চিনিকল। এটি ১৯৩২ সালে প্রতিষ্ঠত হয়। তিনি জানান, মিলের উৎপাদনক্ষমতা বৃদ্ধির কাজটি ভারতের মেসার্স স্প্রে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভাইসেস লিমিটেড বাস্তবায়ন করছে। বর্তমানে সম্প্রসারণ কর্মসূচি শেষের দিকে রয়েছে। চলতি মাস অথবা ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে উৎপাদন শুরু করা সম্ভব হবে এবং এর ফলে অভ্যন্তরীণ বাজারে সরবরাহ বৃদ্ধিসহ রফতানিতেও ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।
সুগার মিলের এডিশনাল চিফ ইঞ্জিনিয়ার রেজাউন নবী সরকার পারভেজ জানান, দেশবন্ধু চিনিকল এই উপমহাদেশের প্রথম সুগার মিল। এটি লন্ডনস্থ রিফাইন সুগার অ্যাসোসিয়েশনের (আরএসএ) একমাত্র সদস্য। বর্তমানে মিলটির দৈনিক উৎপাদনক্ষমতা ৫০০ টন থেকে বৃদ্ধি করে দৈনিক ১৫০০ টন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এতে করে বছরে সাড়ে চার লাখ টন চিনি উৎপাদিত হবে।
এ দিকে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত গ্রুপের একমাত্র শিল্পপ্রতিষ্ঠান দেশবন্ধু পলিমার। পলিমারের উৎপাদন বাড়াতে বেশ কয়েকটি নতুন ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে। নতুন মেশিন স্থাপনের কাজ চলছে।
অন্য দিকে দেশবন্ধু গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান দেশবন্ধু বেভারেজের যাত্রা শুরু হয় ২০১৫ সালের জুন মাসে এবং ২০১৭ সালের ১০ অক্টোবর শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এই কারখানা উদ্বোধন করেন। প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ মারুফ হোসেন বলেন, বর্তমানে সিএসডি, ড্রিংকিং ওয়াটার ও জুস মিলিয়ে নয়টি আইটেম উৎপাদিত হচ্ছে। উৎপাদনক্ষমতা প্রতিদিন ২৮ হাজার কার্টন। দেশবন্ধু বেভারেজে উৎপাদিত পণ্য দেশে বিক্রি ছাড়াও থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়া, গ্রিসেও রফতানি হচ্ছে বলেও জানান তিনি।
এ ছাড়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে গড়ে তোলা হচ্ছে উৎপাদনশীল বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠান। এতে করে দেশে কর্মসংস্থান বৃদ্ধিসহ মধ্যম আয়ের দেশে যেতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান দেশবন্ধু গ্রুপ ভূমিকা রাখবে বলে জানান উদ্যোক্তারা।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.