বিশ্ব ইজতেমায় জুমার নামাজ আদায় করছেন ধর্মপ্রাণ মানুষ : শফিউদ্দিন বিটু
বিশ্ব ইজতেমায় জুমার নামাজ আদায় করছেন ধর্মপ্রাণ মানুষ : শফিউদ্দিন বিটু

ইজতেমা শুরু লাখো মুসল্লির জুমা আদায়

মোহাম্মদ আলী ঝিলন গাজীপুর ও শেখ আজিজুল হক টঙ্গী

রাজধানীর উপকণ্ঠে টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে গতকাল শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানে শুরু হয়েছে ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার তিন দিনব্যাপী প্রথমপর্ব। প্রথম দিনে বৃহত্তর জুমার জামাতে শরিক হতে ইজতিমা ময়দানে আশপাশের এলাকার মুসল্লিদের ঢল নামে। জুমার নামাজে ইজতেমায় যোগদানকারী দেশী-বিদেশী মুসল্লিদের সাথে ঢাকা, গাজীপুরসহ আশপাশের জেলার কয়েক লাখ মুসল্লি অংশ নেন।
ইজতেমা ময়দানে বেলা দেড়টায় শুরু হয় জুমার জামাত। এতে ইমামতি করেন তাবলিগ জামাতের মুরব্বী কাকরাইল মারকাজ মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের।
ইজতেমার বৃহত্তর জুমার জামাতে অংশ নিতে সকাল থেকে শীত উপেক্ষা করে ঢাকা-গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার মুসল্লিরা ইজতেমাস্থলে হাজির হন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে মুসল্লিদের ঢল বাড়তে থাকে। একপর্যয়ে মুসল্লিদের লাইন ইজতেমা মাঠ উপচে ময়দানের পাশের কামারপাড়া রোড, বাটা রোড ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ছড়িয়ে পড়ে। মাঠে স্থান না পেয়ে মুসল্লিরা সড়ক-মহাসড়কে চটের বস্তা, খবরের কাগজ পলিথিন সিট বিছিয়ে জুমার নামাজে শরিক হন।
জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো: ফজলে রাব্বী মিয়া, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি আবু কালাম সিদ্দিক, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মো: হুমায়ুন কবীর, গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ ইজতেমাস্থলে জুমার নামাজে অংশ নেন।
এর আগে বাদ ফজর জর্দানের মাওলানা শেখ ওমর খতিবের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার মূল কাজ শুরু হয়। শেখ ওমরের বয়ান বাংলায় তরজমা করেন কাকরাইল মসজিদের হাফেজ মো: আবদুল মতিন। মুনাজাতের আগ পর্যন্ত তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বীরা ইমান, আমল, আখলাকসহ তাবলিগের ছয় উসুলের (ছয়টি মৌলিক বিষয়ে) ওপর বয়ান পেশ করবেন। গতকাল প্রথম দিনে বাদ ফজর বয়ান করেন জর্দানের মাওলানা শেখ ওমর খতিব, বাদ জুমা বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ হোসেন, বাদ আসর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা আবদুল বারি ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ রবিউল হক।
ইজতেমায় বিভিন্ন ভাষাভাষী মুসল্লিরা আলাদা আলাদা তাঁবুতে বসেন এবং তাদের মধ্যে একজন করে মুরব্বি মূল বয়ানকে তাৎক্ষণিকভাবে নিজ নিজ ভাষায় অনুবাদ করে শোনান। বিশ্ব ইজতেমার কর্মসূচির মধ্যে রয়েছেÑ আম ও খাস বয়ান, তালিম, তাশকিল, ছয় উসুলের হাকিকত, দরসে কুরআন, দরসে হাদিস, চিল্লায় নাম লেখানো, নতুন জামাত তৈরি। ইজতেমার মূল প্যান্ডেলের ভেতরে এবার ১৬টি জেলার ২৮টি খিত্তা (সেক্টর) থাকায় জেলাওয়ারি মুসল্লিরা অনেক জায়গা পেয়েছেন। ফলে মূল প্যান্ডেলে ভিড় আগের চেয়ে এবার অনেকটাই কম।
ভ্রাম্যমাণ আদালত : ইজতেমার প্রথম দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০টি অভিযান পরিচালনা করে অর্ধলক্ষাধিক টাকা জরিমানা করেছে। ইজতেমাস্থলের আশপাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং হোটেল, রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন দোকানে খাবারের মান ও মেয়াদ যাচাইয়ে এসব অভিযান পরিচালিত হয়। কয়েকজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসব অভিযান পরিচালনা করছেন।
দুই মুসল্লির মৃত্যু : বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপে যোগ দিতে আসা দুই মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে বুকের ব্যথাজনীত কারণে কাজী আজিজুল হক (৬৫) ও সড়ক দুর্ঘটনায় মামুন মুনা (৩৩) নামের দুই মুসল্লির মারা যান। পরে জুমা নামাজের পর তাদের নামাজে জানাজা শেষে তাদের নিজ গ্রামে নিহতের লাশ পাঠিয়েছে।
আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি : বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে গাজীপুর জেলা পুলিশ ব্যাপক পদক্ষেপ নিয়েছে। শুক্রবার দুপুরে ইজতেমায় স্থাপিত মিডিয়া সেন্টারে গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ জানান, দেশী-বিদেশী মুসল্লিদের নিরাপত্তায় প্রতিটি খিত্তায় সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যরা কাজ করছেন। এ ছাড়া রাস্তাঘাট, ব্যস্ততম এলাকাসহ পুরো ইজতেমা ময়দান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রেখেছেন। পাঁচ স্তরে পুরো ইজতেমা ময়দানকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে।
বিদেশী মুসল্লি : পুলিশের কন্ট্রোল রুম সূত্র জানিয়েছে, ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে প্রথম দিন আমেরিকা, সৌদি আরব, ভারত, পাকিস্তান, তুরস্ক, লেবানন, ফিলিস্তিন, আফগানিস্তান, আফ্রিকা, ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৭৯টি দেশের প্রায় তিন হাজার ৯১৯ জন মুসল্লি অংশ নিয়েছেন।
ইজতেমায় স্বাস্থ্যসেবা : ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দিতে জেলা সিভিল সার্জন, র্যাবসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান ইজতেমা ময়দানের উত্তর পাশে নিউ মন্নু কটন মিলের মাঠে ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্পে চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ইজতেমা ময়দানে হামদর্দ, ইবনে সিনা, ড্যাব, টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতি, আবেদা মেমোরিয়াল প্রাইভেট হাসপাতাল লিমিটেড, সি কে ডি অ্যান্ড ইউরোলজিস্ট হসপিটাল, যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন, ইসলামী ফাউন্ডেশন, নজরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, স্বাস্থ্য অধিদফতর চিকিৎসাকেন্দ্র, গাজীপুর সিটি করপোরেশনসহ ৫০ ফ্রি মেডিক্যাল টিম বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবার জন্য ক্যাম্প খুলেছে।
১০০ হকার আটক : ইজতেমা ময়দানের আশপাশ থেকে ১০০ জন হকারকে আটক করা হয়েছে। ময়দানের আশপাশে বসে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বিভিন্ন পণ্য ও খাদ্যসামগ্রী বিক্রির অভিযোগে তাদের আটক করা হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.