রশিদ খান
রশিদ খান

আইপিএলে বাম্পার মারবেন রাশিদ খান!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

মাত্র ১৮ বছর বয়সে আন্তর্জাতিক অভিষেক হওয়ার পর থেকেই বিশ্ব ক্রিকেটে নিজেকে একজন তারকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন আফগানিস্তানের লেগ স্পিনার রশিদ খান। বর্তমানে বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-২০ ক্রিকেটে তারকা ব্যাটসম্যানদের বোকা বানিয়ে আন্তর্জাতিক চাহিদায় পরিণত হয়েছেন তিনি।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) গত আসরের নিলামে টুর্নামেন্ট ইতিহাসে এ যাবত কালে সহযোগী দেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রায় ছয় লাখ ডলার দিয়ে তাকে দলে ভেড়াতে হয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এ যাবত ৩২ ওয়ানডে ২৭ টি-২০ ম্যাচে অংশ নিয়ে ১১২ উইকেট শিকার করেছেন ১৯ বছর বয়সী এই স্পিনার এবং ২০১৮ সালে টেস্ট অভিষেক হতে যাওয়া আফগানদের হয়ে মূল খেলোয়াড়ে পরিনত হতে পারেন।

বিশ্বের শীর্ষ টি-২০ লীগগুলোতে চোখ ধাধানো পারফরমেন্স করে চলেছেন রশিদ। অতি সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া বিগ ব্যাশ লীগের (বিবিএল) সপ্ত আসরে এডিলেড স্ট্রাইকার্সের হয়ে ঝলক অব্যাহত রেখেছেন তিনি। বিবিএল’র ছয় ম্যাচে অংশ নিয়ে তিনি শিকার করেছেন ১১ উইকেট।

সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে চলতি বছর ওভার প্রতি ছয় এর বেশি রান তিনি খরচ করেননি। এ মাসের শেষ দিকে অনুষ্ঠিতব্য আইপিএলে নিলাম শেষে রশিদকে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়াদের একজন হিসেবে দেখা যেতে পারে।

চিত্তাকর্ষক পারফরমেন্স দিয়ে ইতোমধ্যেই অস্ট্রেলিয়ায় দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন রশিদ।

যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগানিস্তানে ক্রিকেটের উন্নতি হচ্ছে ঝড়ো গতিতে। ইতোমধ্যেই দেশটি টেস্ট মর্যাদা পেয়েছে। রশিদের বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়ে দেশটির ভবিষ্যত দিনকে দিন উজ্জ্বল হচ্ছে।

গত অক্টোবরে বার্তা সংস্থা এএফপিকে রশিদ বলেন, ‘আমার দেশকে জয় এনে দিতে এবং বিশ্ব পর্যায়ে আফগানিস্তানকে গৌরবান্বিত করার লক্ষ্যে আমি ক্রিকেট খেলি।’

 

আইপিএলের নিলামে সবচেয়ে বেশি দাম উঠতে যাচ্ছে এই তারকাদের

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১১তম আসর শুরু হতে যাচ্ছে কয়েক মাস পরেই। আর নিলাম শুরু হবে এ মাসেই। আইপিএলের নতুন নিয়মের কারণে দলগুলোকে অনিচ্ছা সত্ত্বেও ছেড়ে দিতে হবে পছন্দের কয়েকজন খেলোয়াড়কে। তাই এবারের নিলাম দলগুলোর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ আর খেলোয়াড়দের জন্য তো বটেই। নতুন নিয়মের বলি হবেন কেউ কেউ। উল্টোটাও দেখা যাবে, বেশি দামে নতুন দলে যোগ দিবেন কোনো কোনো খেলোয়াড়। দেখে নিন এবার কাদের জন্য বেশি দাম হাকবে দলগুলো-

রশিদ খান : আফগানিস্তানের এই স্পিনার শেষ আইপিএলে চমকে দিয়েছেন। প্লেঅফে সানরাইজার্সকে ওঠানোর পিছনে তার অবদান ছিল অনেকটাই। নিলামে ভালো দাম পেতে পারেন তিনি।

ক্রিস লিন : অস্ট্রেলিয়ার এই বিধ্বংসী ওপেনারকে এবারে ছেড়ে দিয়েছে নাইট রাইডার্স। কাঁধের চোটে গত আইপিএলকে মাঝপথেই ছেড়ে যেতে হয়েছিল লিনকে। বাউন্ডারি লাইনে লিনের মতো ফিল্ডার খুব কমই দেখা যায়।

কলিন মুনরো : নিউজিল্যান্ডের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার কলিন মুনরো। আন্তর্জাতিক টি২০ ক্রিকেটে এক মাত্র মুনরোরই তিনটি শতরান আছে। আসন্ন নিলামে কলিনের যে দাম চড়বে তা এক প্রকার নিশ্চিত।

এভিন লুইস : কম সময়ের মধ্যে টি২০ সার্কিটে বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন। ইতোমধ্যে তার নামের পাশে দুটি আন্তর্জাতি টি২০ শতরান আছে। নিলামে নজর থাকবে লিউয়িসের দিকেও।

বেন স্টোকস : এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম সেরা অল রাউন্ডার বেনের গত আইপিএলে দাম উঠেছিল ১৪.৫ কোটি। গত আইপিএলে পুণেকে বেশ কিছু ম্যাচ একার হাতে জিতিয়েছিলেন বেন।

ক্রুনাল পান্ডে : গত কয়েক মৌসুমে মুম্বাই ইন্ডিয়ন্সের সমর্থকদের মুখে মুখে ক্রুনালের নাম। ভাই হার্দিককে ধরে রাখলেও ক্রুনাল পান্ডেকে ছেড়ে দিয়েছে নীতা অম্বানির দল। একাদশ আইপিএলে নিলামে অলরাউন্ডার হিসেবে ক্রুনালকে দলে পেতে ঝাঁপাবে বহু দলই। ফলে সদ্য বিবাহিত ক্রুনালের দাম যে বাড়বে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

লোকেশ রাহুল : কাঁধের চোটে গত মৌসুমের আইপিএলে খেলতে পারেননি রাহুল। তবে গত মৌসুমে না খেললেও চলতি মৌসুমে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রাহুল যে কোনো দলের বড় ভরসা হয়ে উঠতে পারেন।

যুজবেন্দ্র চাহাল : বর্তমানে ভারতীয় দলের অন্যতম সেরা স্পিনার যুজবেন্দ্র। গত আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর জার্সি গায়ে বহু ম্যাচে নিজের ভেল্কি দেখিয়েছেন এই স্পিনার। আশ্চর্যজনকভাবে চাহালকে ধরে রাখেনি আরসিবি। নিলামে চাহালের চড়া দাম উঠবে তা বলাই যায়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.