সেনাবাহিনীতে লেফটেন্যান্ট পদে নিয়োগ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে ৮১তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে পুরুষ ও মহিলা অফিসার ক্যাডেট নিয়োগের জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। আবেদনের শেষ তারিখ : ১৭ ফেব্রয়ারি ২০১৮। আবেদন করতে ভিজিট করুন : https://joinbangladesharmy.army.mil.bd| । লিখেছেন মাহমুদ কবীর
বিএমএতে প্রশিক্ষণকালীন যেসব ডিগ্রি নেয়া যাবে : MIST-এর অধীনে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রিসমূহÑ
১. ইলেকট্রিক্যাল ইলেকট্রনিকস অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (ঊঊঈঊ),
২. কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (ঈঝঊ), ৩. মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (গঊ), ৪. সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (ঈঊ)।
ইটচ-এর অধীনে স্নাতক (সম্মান) ডিগ্রিসমূহÑ
১. আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, ২. অর্থনীতি, ৩. পদার্থবিদ্যা, ৪. বিবিএ।
আবেদনের যোগ্যতা : বয়স : ১ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে ১৭-২১ বছর (সশস্ত্রবাহিনীতে কর্মরত প্রার্থীদের জন্য ১৮-২৩ বছর)। এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য নয়।
শারীরিক যোগ্যতা : পুরুষ : উচ্চতা : ১.৬৩ মিটার (৫ ফুট ৪ ইঞ্চি), ওজন : ৫০ কেজি (১১০ পাউন্ড), বুক : স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭৬ মিটার (৩০ ইঞ্চি), প্রসারণ অবস্থায় ০.৮১ মিটার (৩২ ইঞ্চি)।
মহিলা : উচ্চতা : ১.৫৭ মিটার (৫ ফুট ২ ইঞ্চি), ওজন : ৪৭ কেজি (১০৪ পাউন্ড), বুক : স্বাভাবিক অবস্থায় ০.৭১ মিটার (২৮ ইঞ্চি), প্রসারণ অবস্থায় ০.৭৬ মিটার (৩০ ইঞ্চি)।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : এসএসসি ও এইচএসসি/ সমমান পরীক্ষায় যেকোনো একটিতে জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ও অন্যটিতে জিপিএ ৪.৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। ইংরেজি মাধ্যমের প্রার্থীদের জন্য ‘ও’ লেভেলে ৬টি বিষয়ের মধ্যে কমপক্ষে ৩টিতে অ গ্রেড ও ৩টিতে ই গ্রেড থাকতে হবে এবং ‘এ’ লেভেলে ২টি বিষয়েই নূন্যতম ই গ্রেড থাকতে হবে। অথবা ‘ও’ লেভেলে ৬টি বিষয়ের মধ্যে কমপক্ষে ২টিতে অ গ্রেড, ৩টিতে ই গ্রেড ও ১টিতে ঈ গ্রেড থাকতে হবে এবং ‘এ’ লেভেলে ২টি বিষয়ের মধ্যে কমপক্ষে ১টিতে অ গ্রেড ও ১টিতে ই গ্রেড থাকতে হবে। এ ছাড়া ২০১৮ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীরাও আবেদন করতে পারবেন। তবে এসএসসি পরীক্ষায় অবশ্যই জিপিএ ৫/সমমান থাকতে হবে।
বৈবাহিক অবস্থা : প্রার্থীদের অবিবাহিত হতে হবে।
জাতীয়তা : জন্ম/ডোমিসাইল সূত্রে বাংলাদেশী হতে হবে।
প্রার্থীর অযোগ্যতা : সেনা/নৌ/বিমান বাহিনী অথবা যেকোনো সরকারি চাকরি থেকে অপসারিত/ বরখাস্তকারীরা, আইএসএসবি কর্তৃক দুইবার স্ক্রিন্ড আউট/প্রত্যাখ্যাত, আপিল মেডিক্যাল বোর্ড কর্তৃক অযোগ্য ঘোষিত প্রার্থীরা আবেদনের অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
আবেদন করার পদ্ধতি : বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ওয়েবসাইট https:// joinbangladesharmy.army.mil.bd এর মাধ্যমে শুধু অনলাইনে আবেদন করা যাবে। এ ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটে গিয়ে ঐড়সব চধমব-এর ওপরে ডান কোনায় অঢ়ঢ়ষু ঘড়-িতে ক্লিক করে ৮১ বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে অঢ়ঢ়ষু করতে হবে। আবেদনকারী প্রার্থীরা Trust Bank Mobile Money, VISA I Master Card বিকাশ, জড়পশবঃ, টেলিটক (প্রিপেইড) মোবাইল থেকে ১০০০ টাকা আবেদন ফি জমা দিতে পারবেন। ওয়েবসাইটে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদন ফি জমা দেয়া যাবে এবং তাৎক্ষণিকভাবে প্রাথমিক সাক্ষাৎকারের কল-আপ লেটার পাওয়া যাবে।
প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও মৌখিক পরীক্ষার
তারিখ : প্রাথমিক নির্বাচনী (স্বাস্থ্য ও মৌখিক) পরীক্ষা আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ থেকে ১৫ মার্চ ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত বিভিন্ন সেনানিবাসে অনুষ্ঠিত হবে। কোনো প্রার্থী পরীক্ষার দিন উপস্থিত হতে না পারলে বর্ণিত সময়ের মধ্যে যেকোনো দিন উপস্থিত হয়ে ওই পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। তবে পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তনের বিষয়টি আগেই সরাসরি নিজ নিজ পরীক্ষা কেন্দ্রে জানাতে হবে।
লিখিত পরীক্ষা : প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে সাক্ষাৎকারপত্রে উল্লিখিত স্থানে লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। লিখিত পরীক্ষা আগামী ১ জুন ২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে। লিখিত পরীক্ষার ফলাফল আগামী ৮ জুন ২০১৮ তারিখে https:// joinbangladesharmy. army. mil.bd ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।
আইএসএসবি পরীক্ষা : লিখিত পরীক্ষায় যোগ্য প্রার্থীদের ঢাকা সেনানিবাসে অবস্থিত আইএসএসবির কাছে পরীক্ষা/সাক্ষাৎকারের জন্য নির্ধারিত তারিখে উপস্থিত হতে হবে। পরীক্ষা/সাক্ষাৎকারের তারিখ আইএসএসবির ওয়েবসাইটে www.issb-bd.org-তে প্রকাশ করা হবে। এই পরীক্ষা চার দিনে সম্পন্ন হবে এবং যাবতীয় ব্যয় সরকার কর্তৃক বহন করা হবে।
চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা : অইএসএসবি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।
চূড়ান্ত নির্বাচন ও যোগদান নির্দেশিকা
প্রদান : স্বাস্থ্য পরীক্ষায় চূড়ান্ত যোগ্যতা অর্জনসাপেক্ষে প্রার্থীদের সেনাসদর, এজি শাখা (পিএ পরিদফতর) কর্তৃক চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত ঘোষণা ও পরে যোগদান নির্দেশিকা প্রদান করা হবে।
বিএমএ প্রশিক্ষণ : ক্যাডেটরা অ্যাকাডেমিতে ৩ বছরের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবেন। চতুর্থ বছরে বিএমএ/এমআইএসটিতে অবস্থান করে অফিসার হিসেবে স্নাতক (সম্মান)/ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রিসমূহ শেষ করবেন।
কমিশনপ্রাপ্তি : প্রশিক্ষণ শেষে অফিসার ক্যাডেটরা লেফটেন্যান্ট পদবিতে কমিশন পাবেন।
বেতন ও ভাতা : প্রশিক্ষণকালীন অফিসার ক্যাডেটদের মাসিক ১০০০০ টাকা বেতন দেয়া হবে এবং কমিশনপ্রাপ্তির পর লেফটেন্যান্টের বেতনভাতা ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক সুবিধাপ্রাপ্ত হবেন।
সুযোগ-সুবিধা : নিজ সন্তানদের জন্য ক্যাডেট কলেজ, আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজ, গওঝঞ, ইটচ এবং সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত স্কুল/কলেজে অধ্যয়নের সুযোগ ও বাসস্থানপ্রাপ্তি ও বিনা খরচে দেশ-বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ, এএইচএস/ডিওএইচএসে প্লট/ফ্ল্যাটপ্রাপ্তির সুবিধা, জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীতে যোগদানের সুযোগ, প্রশিক্ষণের জন্য বিদেশে গমনের সুযোগ, বাংলাদেশ দূতাবাসে সামরিক/সহকারী সামরিক উপদেষ্টা পদে নিয়োগপ্রাপ্তির সুযোগ ও ব্যক্তিগত যোগ্যতার ভিত্তিতে স্নাতকোত্তর, এমফিল ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ।
জেনে রাখুন : ক্যাডেট কলেজ/ বিএনসিসি/ এমসিএসকে-এর ক্যাডেটদের নিজ নিজ কলেজ/ রেজিমেন্টের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।
আবেদন করতে ভিজিট করুন : https://joinbangladesharmy. army.mil.bd যোগাযোগ : ৮৭১১১১১ বর্ধিত ২৪৮২, ৯৮৩২৪৯৬

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.