কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে ১৬৫০ জন নিয়োগ  

পদের নাম : উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা।
পদের সংখ্যা : ১৬৫০টি।
আবেদনের যোগ্যতা : কৃষিবিজ্ঞানে চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ডিগ্রি থাকতে হবে।
বেতন স্কেল : ১২৫০০-৩০২৩০/-
বয়সসীমা : ২৫ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে সাধারণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ১৮ থেকে ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের বয়সসীমা ১৮ থেকে ৩২ বছর।
যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না : জেলা কোটা না থাকায় শেরপুর, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল, পটুয়াখালী, ভোলা, বরগুনা ও রাজবাড়ী জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না। তবে রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান বাদে অন্য সব জেলার এতিমখানার নিবাসী ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।
অনলাইনে যেভাবে আবেদন করতে হবে : টেলিটকের ওয়েরসাইটে যঃঃঢ়://ফধবংধধড়.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ বা যঃঃঢ়://ফধব.ঃবষবঃধষশ.পড়স.নফ এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের ওয়েবসাইটে িি.িফধব.মড়া.নফ আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। প্রয়োজনীয় নির্দেশনা অনুসারে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে।
অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ : আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বিকেল ৫টা পর্যন্ত। আবেদন ফরম পূরণ করার পর প্রার্থীর মোবাইলে একটি ইউজার আইডি আসবে। এটি পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে। আবেদনের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি বাবদ ১০০ টাকা জমা দিতে হবে।
প্রবেশপত্র ও ফলাফল প্রাপ্তি : নির্ধারিত তারিখ ও সময়ের মধ্যে পাওয়া সব আবেদন যাচাই-বাছাই শেষে যোগ্যদের তালিকা অধিদফতরের ওয়েবসাইটে (িি.িফধব.মড়া.নফ) প্রকাশ করা হবে। যোগ্য ব্যক্তিরা ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার সময়সূচি অধিদফতরের ওয়েবসাইট ও মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে প্রার্থীদের জানানো হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের তালিকাও অনলাইনে প্রকাশ করা হবে। উত্তীর্ণদের নির্ধারিত তারিখের মধ্যে প্রয়োজনীয় সনদ ও কাগজপত্র জমা দিতে হবে। যোগাযোগের জন্য প্রার্থীর আবেদন ফরমে দেয়া মোবাইল নম্বর সচল রাখতে হবে।
পরীক্ষা পদ্ধতি : লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় মোট নম্বর থাকবে ১০০। এর মধ্যে এমসিকিউ টাইপের লিখিত পরীক্ষায় ৭০ ও মৌখিক পরীক্ষায় থাকবে ৩০ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় ৫০ নম্বরের প্রশ্ন বিভাগীয় বিষয় থেকে করা হয় ও ২০ নম্বরের প্রশ্ন আসে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান ও কম্পিউটার বিষয়ে। তবে কর্তৃপক্ষ ইচ্ছে করলে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও নম্বর বণ্টনে পরিবর্তন আনতে পারেন।
লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি : ৭০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় ১০০টি প্রশ্ন থাকতে পারে। সময় এক ঘণ্টা। বিভাগীয় ৫০ নম্বরে কৃষি যন্ত্রপাতি, কৃষি সম্প্রসারণ, কৃষি উৎপাদন নীতি, কৃষি উন্নয়ন, মাঠ ফসলের চাষাবাদ, রোগবালাই ও পোকামাকড় দমন, উদ্যান ফসলের চাষাবাদ, সবজি চাষ, উদ্ভিদের পুষ্টি ও সার ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বেশি প্রশ্ন করা হয় । তাই এসব বিষয় পড়বেন।
ষ মোশাররফ হোসেন

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.