হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া না বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাজীদের বিমান ভাড়া না বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে বাংলাদেশ হজযাত্রী ও হাজী কল্যাণ পরিষদ। একইসাথে অযৌক্তিকভাবে ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব দেয়ায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোসাদ্দেক আহমেদকে অপসারণ ও দুর্ণীতি দমন কমিশনকে (দুদক) তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে তারা।

আজ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট ড. আবদুল্লাহ আল নাসের এ দাবি জানান।

তিনি বলেন, গত বছর হজে বিমান ভাড়া এক লাখ ২৪ হাজার ৭২৩ টাকা থাকলেও এ বছর ১৬৩৩ মার্কিন ডলার বা প্রায় এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করেছে বিমান। এর সাথে আরো কিছু চার্জ যুক্ত হয়ে মোট এক লাখ ৪৬ হাজার টাকা হবে। যা সম্পূর্ণ অন্যায় সিদ্ধান্ত। এতে হাজীদের কাছ থেকে ৩৪৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা বেশি নেয়ার পাঁয়তারা করা হচ্ছে। এ টাকা বিদেশে পাচার হওয়ার আশংকা রয়েছে জানিয়ে তিনি বিমান এমডির অপসারণ দাবি করেন।

নাসের আরো বলেন, বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক বিভিন্ন এয়ারলাইন্সে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা ভাড়া নেয়া হয় ৩৮ থেকে ৪২ হাজার টাকা। সৌদি এয়ারলাইন্স নেয় ৪৮ হাজার টাকা। এ বছরের ওমরায় বাংলাদেশ বিমান জেদ্দা যাওয়া-আসা ভাড়া নিচ্ছে ৫২ হাজার টাকা। অথচ সেই ভাড়া হজের সময় এক লাখ ৪৬ হাজার টাকা করা কোনো মতেই যুক্তিসঙ্গত হতে পারে না।

তিনি বলেন, হজের সময় বিমান হজযাত্রী নিয়ে জেদ্দা গিয়ে আসার সময় খালি আসে এবং হজ শেষে ঢাকা থেকে খালি গিয়ে জেদ্দা থেকে হাজীদের নিয়ে আসে- এ যুক্তিতে ভাড়া দ্বিগুন করে ৪৮ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ৯৬ হাজার টাকা করা যেতে পারে, কিন্ত তা কোনোভাবেই তিনগুন হতে পারে না।

তিনি এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, হজযাত্রী আল্লাহর মেহমান। তাদেরকে জিম্মি করে ভাড়া বাড়ানো হবে আত্মঘাতি। হজে বিমান ভাড়া সহনীয় পর্যায়ে আনার দাবি জানান তিনি।

আবদুল্লাহ আল নাসের বলেন, জাতীয় হজ ও ওমরা নীতিমালার ১০.১.১ অনুসারে বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইন্সের পাশাপাশি মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক অন্যান্য এয়ারলাইন্স যোগে হাজীদের পরিবহনের ব্যবস্থা করতে পারে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়। গত বছর কয়েকটি এয়ারলাইন্স এ ব্যাপারে আবেদনও করেছিল। তাতে তারা মাত্র এক ঘণ্টা রিফুয়েলিং করার অনুমতি চেয়েছিল। যাত্রী ওঠানামা করবে না এ শর্তে তাদের এ সুযোগ দেয়ার দাবি জানান হাজী কল্যাণ পরিষদের এ নেতা।

তিনি বলেন, এতে বিমান ভাড়া অনেক কমিয়ে আনা সম্ভব হবে এবং হজযাত্রীরা যার সুফল ভোগ করতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, ডা. ইকবাল হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজাদ হোসেন ও কামরুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হক, নির্বাহী সদস্য আবুল হাসেম প্রমুখ।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.