পদ্মাবতে খিলজি চরিত্রে অভিনয় করেছেন রণবীর সিং
পদ্মাবতে খিলজি চরিত্রে অভিনয় করেছেন রণবীর সিং

'খিলজি'র জয়জয়কার, পারিশ্রমিক বেড়ে কত হলো রণবীরের?

নয়া দিগন্ত অনলাইন

দীর্ঘ অপেক্ষার পর মুক্তি পেয়েছিল সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘পদ্মাবত’। আর মুক্তির পরই বি-টাউন জুড়ে শুধুই রণবীর সিংহের জয়জয়কার। শাহিদ কাপুর আর দীপিকা পাডুকোনের অভিনয় প্রশংসা পেলেও, আসল বাজিমাত করেছেন রণবীরই।

ইতোমধ্যেই ‘পদ্মাবত’-এর বক্স অফিস কালেকশন দুই শ' কোটি ছাড়িয়ে গিয়েছে। এর মাধ্যমে নতুন রেকর্ডও গড়ে ফেলেছেন রণবীর। মাত্র ৩২ বছর বয়সে দুই শ' কোটির ক্লাবে নাম লিখিয়েছেন তিনি, যা বলিউডে অন্য কোনো নায়ক পারেননি।

মুকুটে নতুন পালক যুক্ত হওয়ায় নিজের পারিশ্রমিক বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রণবীর। এমনই দাবি এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনের।

এই ছবিতে অভিনয় করার জন্য রণবীর ও শাহিদের থেকেও বেশি পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন দীপিকা পাডুকোন। ৬০ দিন শ্যুটিং করে ১৩ কোটি রুপি নিয়েছিলেন এই বলিউড সুন্দরী।

প্রতিবেদনটি থেকে জানা গেছে, এবার থেকে রণবীরও তার প্রেমিকাকে পাল্লা দিতে চলেছেন। ‘পদ্মাবত’-এর সাফল্যের পর থেকে রণবীরের পারিশ্রমিকও এমনই হতে চলেছে। তবে অঙ্কটা ঠিক কত তা এখনও জানা যায়নি।

রণবীর এখন জয়া আখতার পরিচালিত ‘গালি বয়’-এর শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত। এ ছাড়া তার ঝুলিতে রয়েছে রোহিত শেট্টির ‘সিমবা’। আর কবির খানের ‘৮৩’, যাতে কপিল দেব-এর ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে রণবীরকে।

 

খিলজিকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন, মালয়েশিয়ায় নিষিদ্ধ ‘পদ্মাবত’

ভারতের আলোচিত-সমালোচিত পদ্মাবত সিনেমাটি নিষিদ্ধ করেছে মালয়েশিয়া। ভারতীয় উপমহাদেশের মুসলিম শাসক আলাউদ্দিন খিলজিকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপনের জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। মুক্তির আগে থেকেই ভারতে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পড়েছে সিনেমাটি। মুক্তির দিন বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ সংঘর্ষও হয়েছে। অনেক স্থানে পুলিশ পাহারায় সিনেমাটি দেখানো হয়েছে।

চতুর্দশ শতকের ঐতিহাসিক ঘটনানির্ভর সিনেমাটির মূল বিষয়বস্তু দিল্লির মুসলিম শাসক আলাউদ্দিন খিলজি, রাজপুত শাসক রতন সিং ও রানী পদ্মাবতী। ইতিহাস বিকৃত করার অভিযোগ এনে করনি সেনা নামক হিন্দুদের একটি গ্রুপ ছবিটিকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছে। ছবিটির নিষিদ্ধের জন্য আদালতেও গিয়েছে তারা। তবে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনার পর চারটি প্রদেশ বাদে ভারতের অন্যান্য অংশে কঠোর নিরাপত্তায় মুক্তি দেয়া হয়েছে ছবিটি।

গত শুক্রবার মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সিনেমাটি তাদের দেশে প্রদর্শন করতে দেয়া হবে না। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, মুসলিম শাসক আলাউদ্দিন খিলজিকে যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে তা যুক্তিযুক্ত নয়। স্ট্রেইট টাইমস পত্রিকা জানিয়েছেন, মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘তাকে এমন একজন অহঙ্কারী, নিষ্ঠুর, অমানবিক, ধূর্ত বাদশাহ হিসেবে দেখানো হয়েছে। উপস্থাপন করা হয়েছে প্রতারক ও ইসলামিক শিক্ষা মেনে চলেন না এমন চরিত্র হিসেবে।’

মালয়েশিয়ার চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডও জানিয়েছে, ছবিটি প্রদর্শনের জন্য অনুমোদন করা হবে না। মালয়েশিয়ায় ছবিটির যে ট্রেলার প্রচার করা হয়েছে সেখানেও আলাউদ্দিন খিলজিকে আগ্রাসী চরিত্র হিসেবে দেখানো হয়েছে। মালয়েশিয়ার জনগোষ্ঠীর ৭ শতাংশ ভারতীয়। বলিউডের সিনেমা সেখানে খুবই জনপ্রিয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.