বিএনপি-নেতা হাসান সরকার দু'দিনের রিমান্ডে

টঙ্গী সংবাদদাতা

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকারের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে দু'দিনের রিমান্ড দিয়েছেন গাজীপুরের একটি আদালত। 

গত ৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নিজের প্রতিষ্ঠিত একটি এতিমখানা মাদরাসা থেকে হাসান সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে টঙ্গী মডেল থানায় পুলিশের দায়ের করা একটি রাজনৈতিক মামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার মামলার ধার্য তারিখে সকাল ৯টায় তাকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে গাজীপুর কোর্ট হাজতে আনা হয়। বেলা সাড়ে ১১টায় তাকে আদালতে হাজির করে পুলিশ। দুপুর ১২টায় কোর্ট পুলিশ কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম আদালতে মামলার নথি উপস্থাপন করেন। এসময় হাসান সরকারসহ মামলার ৭ আসামির উপস্থিতিতে তাদের ১০ দিনের রিমান্ড ও জামিনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানি শেষে গাজীপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্যাট মো. শহীদুল ইসলাম সাবেক এমপি হাসান উদ্দিন সরকারসহ সকল আসামীর জামিন নামঞ্জুর করেন এবং প্রত্যেকের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। হাসান উদ্দিন সরকারের পক্ষে গাজীপুর বারের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মঞ্জুর মোর্শেদ প্রিন্স, বারের সাবেক সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী শহীদুজ্জামান, সাবেক সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী এদিকে শুনানী চলাকালে হাসান সরকারের মুক্তির দাবিতে আদালতের বাইরে গাজীপুর জেলা ও মহানগর মহিলা দলের মানববন্ধন চলছিল। একইসাথে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজনৈতিক কারাবন্ধীর মুক্তির দাবীতে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচী চলছিল জেলা বিএনপির।

হাসান উদ্দিন সরকারের আইনজীবী গাজীপুর বারের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মঞ্জুর মোর্শেদ প্রিন্স বলেন, হাসান উদ্দিন সরকার বীরমুক্তিযোদ্ধা ও বয়ষ্ক প্রবীণ রাজনীতিক। গাজীপুরে অর্ধশতাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়াসহ জেলায় তার অনেক অবদান রয়েছে। তাকে রাজনৈতিক কারণে হয়রানির উদ্দেশ্যেই মিথ্যা সাজানো ঘটনার মামলায় আসামি করা হয়েছে। আদালত রাজনৈতিক হয়রানির বিষয়টি বিবেচনায় না নিয়ে তার জামিন না মঞ্জুর করে তাকে অন্যায়ভাবে রিমান্ড দিয়েছেন। আমরা উচ্চতর আদালতে তার জামিন আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু করেছি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.