আঙ্কারা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক হয় পুনঃনির্মাণ করতে হবে, না হয় বিছিন্ন হয়ে যাবে : তুরস্ক
আঙ্কারা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক হয় পুনঃনির্মাণ করতে হবে, না হয় বিছিন্ন হয়ে যাবে : তুরস্ক

আঙ্কারা-ওয়াশিংটন সম্পর্ক হয় পুনঃনির্মাণ করতে হবে, না হয় বিছিন্ন হয়ে যাবে : তুরস্ক

নয়া দিগন্ত অনলাইন

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু বলেছেন, আমেরিকার সঙ্গে তার দেশের সম্পর্ক সঙ্কটজনক পর্যায়ে পৌঁছেছে। তিনি বলেন, আঙ্কারার সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্ক এখন হয় পুনঃনির্মাণ করতে হবে, না হয় বিছিন্ন হয়ে যাবে।

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় আফরিন এলাকায় কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী ওয়াইপিজি’র বিরুদ্ধে তুরস্কের চলমান সামরিক অভিযান নিয়ে আমেরিকা ও তুরস্কের মধ্যে সম্পর্কের চরম অবনতির প্রেক্ষাপটে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ মন্তব্য করলেন।

তিনি বলেন, আমাদের সম্পর্ক খুবই সঙ্কটজনক পর্যায়ে। হয় তারা এটা ঠিক করবে অন্যথায় সম্পূর্ণভাবে এ সম্পর্ক ধ্বংস হয়ে যাবে। ইস্তাম্বুল শহরে তুর্কি-আফ্রিকান বৈঠকের অবকাশে চাভুসওগ্লু সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের কাছে তিনি আঙ্কারার প্রত্যাশা তুলে ধরেন এবং ওয়াইপিজি’র প্রতি আমেরিকার অব্যাহত সমর্থনের নিন্দা করেন। তিনি বলেন, আমরা আমেরিকার কাছ থেকে কোনো প্রতিশ্রুতি চাই না। ওয়াইপিজি’র বিষয়ে আমরা চাই সুস্পষ্ট পদক্ষেপ। আমেরিকার সঙ্গে নষ্ট হয়ে যাওয়া আস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে হবে এবং এই আস্থা নষ্ট হয়েছে আমেরিকার কারণে।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন আগামী সপ্তাহে তুরস্ক সফর করবেন। এর আগে চাভুসওগ্লু এসব মন্তব্য করলেন।

তুরস্ক-আমেরিকা সম্পর্কে মারাত্মক টানাপোড়েন

আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেনারেল এইচ.আর.ম্যাকমাস্টার তুরস্ক সফর করেছেন। সিরিয়ায় মার্কিন সমর্থিত কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী ওয়াইপিজি’র বিরুদ্ধে তুরস্কের সামরিক অভিযান নিয়ে যখন আমেরিকার সঙ্গে তুর্কি সরকারের মারাত্মক টানাপোড়েন দেখা দিয়েছে তখেন ম্যাকমাস্টারের এই সফর অনুষ্ঠিত হলো।

তুরস্ক সফরে পৌঁছে তিনি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। তুর্কি প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে সরকারপন্থি দৈনিক পত্রিকা সাবাহ রোববার প্রথমে এ খবর দিয়েছে এবং এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্টের দপ্তর হোয়াইট হাউজ থেকে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

দৈনিক সাবাহ জানিয়েছে, তুরস্ক ও আমেরিকা -দুই পক্ষের জন্য অগ্রাধিকার এবং সংবেদনশীল বিষয়গুলো নিয়ে বৈঠকে আলোচনা করা হয়। এছাড়া, দু দেশের মধ্যকার সামগ্রিক সম্পর্ক, অভিন্ন কৌশলগত চ্যালেঞ্জ ও আঞ্চলিক ঘটনাবলী নিয়ে আলোচনা করেন।

গত ২০ জানুয়ারি থেকে তুরস্ক সিরিয়ার আফরিন এলাকায় কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠী ওয়াইপিজি’র বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালিয়ে আসছে। বিষয়টি ভালো চোখে দেখছে না আমেরিকা। আমেরিকা দীর্ঘদিন ধরে সিরিয়া সরকারের বিরুদ্ধে এই গেরিলা গোষ্ঠীকে মদদ দিয়ে আসছে। অন্যদিকে, তুরস্ক ও আমেরিকা দু দেশই ন্যাটোর সদস্য হলেও তুর্কি সরকার ওয়াইপিজি-কে নিজেদের শত্রু বলে বিবেচনা করে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.