এএফসি কাপে সাফল্যের প্রত্যাশা আবাহনীর

বাসস

টানা দ্বিতীয়বারের মতো এএফসি কাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে ঢাকা আবাহনী। আগামী ৭ মার্চ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নদের প্রথম ম্যাচ। ঘরের মাঠে মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্টের বিপক্ষে খেলবে তারা।

এশিয়ার অন্যতম সেরা ক্লাব টুর্নামেন্টে ভালো খেলতে আশাবাদী আবাহনী। এএফসি কাপকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে আবাহনীর অনুশীলন। দলের নতুন কোচ সাইফুল বারী টিটু বলেন, ‘আবাহনী আমার পাড়ার ক্লাব, তাই এই দলের কোচ হওয়ার অনুভূতি অন্যরকম। এখন আমি আবাহনীর কোচ, এটা আমার কাছে অনেক কিছু। দলের সাফল্যের দিকে দৃষ্টি দিতে চাই।’
২০০৫ সালে মোহামেডানের হয়ে কোচিং শুরু টিটুর। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, আরামবাগ ও চট্টগ্রাম আবাহনীর পাশাপাশি জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। শেখ জামালকে নেপালের পোখরা কাপ ও ফেডারেশন কাপ এবং মোহামেডানকে এনে দিয়েছেন সুপার কাপের শিরোপা।
এএফসি কাপ নিয়ে তার মন্তুব্য, ‘এটা নতুন চ্যালেঞ্জ, শুধু আমার নয়, খেলোয়াড়দেরও চ্যালেঞ্জ। লিগে যেভাবে তারা কামব্যাক করেছে, সেটা এএফসি কাপেও দেখাতে হবে। এএফসি কাপে আমাদের পারফরম্যান্সও সবাই দেখবে। আমাদের গ্রুপ পর্ব পার হতে হবে।’
এএফসি কাপে আবাহনীর গ্রুপ নিয়ে টিটুর বিশ্লেষণ, ‘নিউ রেডিয়েন্ট অনেক ভালো দল। ওদের দলে মালদ্বীপের অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড আলী আশফাক আছে, আফগান-লেবানিজ-স্প্যানিশ খেলোয়াড়রা আছে। ওরা দ্রুতগতিতে পাল্টা আক্রমণে যায়। বেঙ্গালুরু গতবারের ফাইনালিস্ট। আর আইজল পাহাড়ি দল। আমাদের গ্রুপ পর্ব পেরোনোর সম্ভাবনা ৫০-৫০।’
গতবার এএফসি কাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিল আবাহনী। এবার ‘ই’ গ্রুপে তাদের সঙ্গী মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্ট এবং ভারতের পেশাদার আই-লিগ চ্যাম্পিয়ন আইজল এফসি। এই তিন দলের সঙ্গে মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস অথবা ভারতের বেঙ্গালুরু এফসি খেলবে ‘ই’ গ্রুপে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.