স্ত্রী নির্যাতন

আলীকদমে দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

আলীকদম (বান্দরবান) সংবাদদাতা

স্ত্রী নির্যাতনের দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুইজন সহকারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে। মামলার পর থেকে এ দুই শিক্ষককে ধরতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। অভিযুক্ত শিক্ষকেরা হচ্ছেনÑ থোয়াইচিং হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ও চৈক্ষ্যং ত্রিপুরা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মনিরুল ইসলাম।
থানায় প্রদত্ত এজাহারে প্রকাশ, উপজেলার থোয়াইচিং হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ২০০১ সালে বিয়ের পর থেকে তার শিক্ষিকা স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দেয়ার জন্য শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। এ নির্যাতনের অন্যতম সহযোগী তার আরেক ভাই চৈক্ষ্যং ত্রিপুরা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মনিরুল ইসলাম। সর্বশেষ গত মাসে তিন লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে শফিকুল ইসলাম তার দুইভাই জহির ও মনিরুলকে সাথে নিয়ে স্ত্রীর ওপর বর্বর নির্যাতন চালান।
গত ৬ ফেব্রুয়ারি পারিবারিক বৈঠকে সমঝোতার মাধ্যমে স্ত্রীকে আলীকদরেম বাড়িতে নিয়ে এসে আরো কয়েকদফা নির্যাতন করেন। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পুনরায় নির্যাতনের দায়ে আলীকদম থানায় নিরুপায় হয়ে অভিযোগ করেন নির্যাতিতা স্ত্রী। এ ব্যাপারে আলীকদম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু হয়েছে। চকরিয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গত ৭ ফেব্রুয়ারি অভিযুক্ত শিক্ষক শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে যৌতুক নিরোধ আইনে আরেকটি মামলা রুজু হয়েছে।
অভিযুক্ত শিক্ষকদ্বয় সহোদর ভাই। এরমধ্যে নির্যাতক স্বামী মামলার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। অপরজন বান্দরবান সদরে আইসিটি প্রশিক্ষণে আছেন।
আলীকদম থানার সেকেন্ড অফিসার মোহাম্মদ আজমগীর জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকদের ধরতে সংশ্লিষ্ট স্কুলে অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু তারা স্কুলে অনুপস্থিত থাকায় তাদের আটক করা যায়নি।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.