আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীতে নিয়োগ

বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীতে সাধারণ আনসার প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে লোকবল নিয়োগ দেয়া হবে। অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ : ২ মার্চ ২০১৮, ১২টা পর্যন্ত। লিখেছেন মোশাররফ হোসেন
অনলাইনে আবেদনপ্রক্রিয়া : আপনি যোগ্য প্রার্থী হলে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন এবং বাছাইয়ের জন্য নির্ধারিত স্থান ও তারিখের সময়সূচি অনুযায়ী আপনাকে বাছাই কমিটির নিকট উপস্থিত হতে হবে।
প্রশিক্ষণ : চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের ১০ সপ্তাহ মেয়াদি সাধারণ আনসার হিসেবে মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। তন্মধ্যে দুই সপ্তাহ সংশ্লিষ্ট জেলা সদরে ও পরবর্তী ৮ সপ্তাহ বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি একাডেমিতে প্রশিক্ষণ পরিচালিত হবে।
বয়সসীমা : ০৪/০৩/২০১৮ তারিখে প্রার্থীদের বয়সসীমা ১৮-৩০ বছর।
আবেদনের যোগ্যতা : ন্যূনতম জেএসসি/অষ্টম শ্রেণী পাস হতে হবে।
শারীরিক যোগ্যতা : উচ্চতা সর্বনিম্ন ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, বুকের মাপ-৩০/৩২ ইঞ্চি, দৃষ্টিশক্তি-৬/৬। কোনো দুরারোগ্য ব্যাধি থাকলে প্রার্থীকে প্রাথমিক বাছাইয়ে নির্বাচন করা হবে না। তবে অধিক উচ্চতা, শহীদ পরিবার, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে অধিক যোগ্যতাসম্পন্ন, (ভিডিপি/টিডিপি) মৌলিক প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত প্রার্থীকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
জাতীয়তা : বাংলাদেশী।
অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করা : ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার অথবা যেকোনো অনলাইন সুবিধাসম্পন্ন কম্পিউটার থেকে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ওয়েবসাইট (িি.িধহংধৎাফঢ়.মড়া.নফ)-এ ঙহষরহব অহংধৎ জবপৎঁরঃসবহঃ লিংকে ক্লিক করে আবেদনপত্র পূরণ করে জমা দেয়া যাবে। ওই লিংকটি আগামী ২ মার্চ ১২টা পর্যন্ত সক্রিয় থাকবে। অনলাইন রেজিস্ট্রেশনকালীন ফি বাবদ ২০০ টাকা অনলাইনে প্রদর্শিত বিকাশ/রকেট/মোবিক্যাশের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। আবেদনকালে আবেদনপত্র দাখিল ও ফি পরিশোধসংক্রান্ত কোনো সমস্যা হলে পরামর্শের জন্য ০১৮৪০১৯৭২০৭, ০১৬২৯৪৬৪২৮৯ ও ০১৫৩৪৭২৬৫৩৫ নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হলে সেই সময় অনলাইনে প্রবেশপত্রটি প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে এবং বাছাইয়ের সময় তা দেখাতে হবে।
যাচাই-বাছাইয়ে অংশগ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র : (ক) শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল সনদপত্র, (খ) জাতীয় পরিচয়পত্রের মূল কপি, (গ) চারিত্রিক সনদপত্রের মূলকপি, (ঘ) নাগরিকত্ব সনদপত্রের মূলকপি, (ঙ) অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের কনফারমেশন ডকুমেন্টের (প্রবেশপত্র) মূলকপি, (চ) উপরিউক্ত সব ডকুমেন্টের ফটোকপি যা গেজেটেড অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত, (ছ) সদ্য তোলা ৪ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি, যা গেজেটেড অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত, (জ) প্রার্থীদের পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য কলম, পেনসিল, স্কেল ও ক্লিপবোর্ড সাথে আনতে হবে।
সুযোগ-সুবিধা : (ক) প্রশিক্ষণ শেষে অঙ্গীভূত হলে সমতল এলাকায় মাসিক ১৩,০৫০ টাকা এবং পার্বত্য এলাকায় ১৪,২০০ টাকা ভাতা প্রাপ্য হবেন। (খ) প্রতি বছর দু’টি উৎসবভাতা প্রাপ্য হবেন ১০,০০০ টাকা হারে (অনধিক)। (গ) দুই ইউনিট রেশন ভর্তুকি মূল্যে দেয়া হবে। (ঘ) কর্তব্যরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে পাঁচ লাখ টাকা এবং স্থায়ী পঙ্গুত্ববরণ করলে দুই লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে।
জেলা ও রেঞ্জভিত্তিক নির্বাচনের তারিখ, সময় ও নির্বাচন কেন্দ্রের নাম :

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.