পছন্দের ডিভাইসে বাংলা লেখা

সুমনা শারমিন

বাংলা ভাষার ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স ব্যবহারের সুবিধা দেয়া হয়েছে। তাই বাংলায় লেখালেখি করে আয় করা যাবে গুগল অ্যাডসেন্স। অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে কোনো ওয়েবসাইটের মালিক কিছু শর্তসাপেক্ষে নিজের সাইটে গুগল নির্ধারিত বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমে আয় করতে পারেন।
বিশ্বের বেশির ভাগ ব্যবহারকারী ফেসবুকে ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগ করেন। তবে ভিন্ন ভাষাভাষীদের জন্য সামাজিক যোগাযোগের এই সাইটে সম্প্রতি পছন্দমতো ভাষা নির্বাচনের সুবিধা চালু করেছে। এর মধ্যে বাংলাও আছে। ফেসবুকে বাংলা ভাষা নির্বাচন করতে লগইন করে ফেসবুকের ডান পাশের সেটিংসে ক্লিক করতে হবে। পরের ক্লিকটি করতে হবে বাঁ পাশে থাকা ল্যাঙাগুয়েজে। পরে ডান পাশ থেকে ‘ডযধঃ ষধহমঁধমব ফড় ুড়ঁ ধিহঃ ঃড় ঁংব ঋধপবনড়ড়শ রহ?’ অপশনে ক্লিক করে বাংলা ভাষায় নির্বাচন করে দিতে হবে। তাহলে সম্পূর্ণ ফেসবুকে ইন্টারফেস বাংলায় হয়ে যাবে।
এবার জেনারেল অ্যাকাউন্ট সেটিংসে গিয়ে ল্যাঙ্গুয়েজ অপশনে বাংলা ভাষা নির্বাচন করে দিতে হবে। পেইজটি রিফ্রেশ দিলেই পছন্দের ভাষা হিসেবে বাংলা দেখা যাবে। ফেসবুকে লিখতে হবে ইউনিকোডে।
কণ্ঠ দিয়ে বাংলা লেখা
মুখে কথা বললে হাতের কোনো স্পর্শ ছাড়াই আপনার কথা লেখা হয়ে যাবে। বিশ্বব্যাপী এমন প্রযুক্তির ব্যবহার নতুন না হলেও সুবিধাটি (সফটওয়্যার) এতদিন ছিল ইংরেজির জন্য। এখন এটি বাংলায়ও করা যায়। এ জন্য ইনস্টল করে নিতে হবে জিবোর্ড অ্যাপটি। যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/৪ুটশছঐ থেকে জিবোর্ড ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে হবে।
ট্রান্সলেটরে বাংলা
ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদ এত দিন শুধু গুগলেই ছিল। এবার সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটরেও ভাষা হিসেবে বাংলাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এতে বাংলা ট্রান্সলেটরে ভাষার অনুবাদ তাৎক্ষণিক দেখতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/ংটয়৩ংফ ঠিকানায় পাওয়া যাবে এটি।
ওয়ার্ডপ্রেসে বাংলা
কম্পিউটারে কোনো বাংলা লেখার টুলস বা সফটওয়্যার না থাকলে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বাংলা লেখার সুবিধা যুক্ত করা যায়। এ কাজটি করতে ওয়ার্ডপ্রেসে ‘রয়েল বাংলা কি-বোর্ড’ নামে চমৎকার একটি প্লাগ-ইন রয়েছে। এর মাধ্যমে ইউনিজয় ও অভ্র ফনেটিক কি-বোর্ড লেআউটে লেখা যাবে। এতে স্থায়ীভাবে (ডিফল্ট) ইউনিজয় কি-বোর্ড দেয়া থাকে। ব্যবহারকারী প্রয়োজনমতো কি-বোর্ড পরিবর্তন করে ইংরেজি বা অভ্র ফনেটিক নির্বাচন করে লিখতে পারেন।
এই কি-বোর্ডের সাহায্যে ব্যবহারকারীরা (ভিজিটররা) যেমন বাংলা লিখে সার্চ, কমেন্ট করতে পারবেন, তেমনি ডেভেলপাররা (ব্যাক-অ্যান্ড) ড্যাশবোর্ডেও বাংলা লিখতে পারবেন। কোনো সেটিংস পরিবর্তন বা বাড়তি কোনো টুল নির্বাচন করতে হবে না। প্লাগ-ইনটি যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/উুধণঅন থেকে ডাউনলোড করে ওয়ার্ডপ্রেসের ড্যাশবোর্ডে গিয়ে ইনস্টল করে নেয়া যাবে।
ম্যাকে বাংলা
অ্যাপলের ম্যাকবুক ব্যবহারকারীরা বাংলা লিখতে গিয়ে বিপাকে পড়েন। উইন্ডোজের মতো কিন্তু ম্যাকেও বাংলা লেখা যায়। এ ক্ষেত্রে লাগবে বিজয় একাত্তর সফটওয়্যার। এতে আছে বিজয় ক্ল্যাসিক, বিজয় একাত্তর ও ইউনিকোড দিয়ে লেখার সুবিধা। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড ও বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/অঋনঃচঊ ঠিকানায়। যদি অভ্রর ফনেটিকে লিখে অভ্যস্ত হয়ে থাকেন, তাহলে যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/খারমঈ৫ থেকে আইঅভ্র সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিতে হবে। এ ছাড়া ম্যাকে ইউনিকোড লিখতে একুশে কি-বোর্ড ডাউনলোড করতে পারেন যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/নধগসন২ থেকে।
লেআউট ও ফন্ট ইনস্টল করার পরে পরবর্তী ধাপে প্রথমে ম্যাকের বাঁ পাশে থাকা অ্যাপল আইকনে ক্লিক করতে হবে। এরপর সিস্টেম প্রিফারেন্সে ক্লিক করতে হবে। তারপর নতুন একটি পেইজ চালু হবে, সেখান থেকে কিবোর্ড অপশনে যেতে হবে।
সেখান থেকে ইনপুট সোর্সে গিয়ে নিচ থেকে ‘+’ আইকনে ক্লিক করতে হবে। এরপর সেখান থেকে নির্ধারণ ভাষার লেআউট নির্ধারণ করে অ্যাড বাটনে ক্লিক করতে হবে। তাহলে বাংলায় লেখা যাবে ম্যাকে। কি-বোর্ডের ভাষায় পরিবর্তন করতে কন্ট্রোল+স্পেসে ক্লিক করতে হবে।
উইন্ডোজে বাংলা লেখা
বাংলা লেখার জন্য উইন্ডোজে দুটি সফটওয়্যার জনপ্রিয় বিজয় ও অভ্র। বিজয় সফটওয়্যারটি আনন্দ কম্পিউটার্সের তৈরি, এটি বাজার থেকে কিনে পিসিতে ইনস্টল করতে হবে। ইনস্টল করার পর সফটওয়্যারটি কম্পিউটার চালুর সময় থেকেই কাজ করতে শুরু করবে। বাংলা লেখার জন্য মাইক্রোসফট ওয়ার্ড চালু করে বিজয়ের যেকোনো একটি ফন্ট নির্বাচন করতে হবে। তারপর বিজয় থেকে বাংলা মোড চালু করে লিখলেই হবে। বিজয়ের ক্ষেত্রে কি-বোর্ড লেআউট মাত্র একটি, বিজয়। এর মাধ্যমে অ্যানসি বাংলা ও ইউনিকোড দু’টিই ব্যবহার করা যাবে। উইন্ডোজ ছাড়াও ম্যাক ও লিনাক্সের জন্য বিজয়ের সংস্করণ রয়েছে। আরো জানতে যেতে হবে যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/লঢখরট৭ ওয়েবসাইটে।
বিজয় থেকে ইউনিকোডে পরিবর্তন
ইউনিকোডে লেখা বাংলা পরিবর্তন করার জন্য কনভার্টার রয়েছে। সেখানে একটি উইন্ডোতে ইউনিকোড বাংলা কপি করে কনভার্ট বাটন চাপলেই অন্য উইন্ডোতে সাধারণ বাংলা পাওয়া যাবে। সেখান থেকে টেক্সট কপি করে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে একটি ডকুমেন্ট খুলে সেখানে পেস্ট করে পুরোটা নির্বাচন করে কোনো একটি বিজয় ফন্ট নির্ধারণ করে দিতে হবে। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় সুতন্বি এমজে। তবে অভ্র কনভার্টারে ফন্ট ভেঙে যাওয়ার প্রবণতা রয়েছে, ফলে ইন্টারনেট সংযোগ থাকলে বিএন ওয়েবটুলস যঃঃঢ়ং://মড়ড়.মষ/জঢ৩তুৎ ওয়েবসাইট থেকে কনভার্ট করা বেশি সুবিধাজনক।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.