আগডুম বাগডুম কবিতা

ফাগুন এলে
সৈয়দ মাশহুদুল হক

ফাগুন এলে নানান রঙের
ফুল ফোটে ওই বনে
সে ফুলেরই রূপ দেখিয়া
রঙ ধরে এই মনে।

শিমুল, পলাশ, কৃষ্ণচূড়ায়
ওড়ে ভ্রমর-অলি
গাছে গাছে গজায় পাতা
ফোটে মুকুল-কলি।

ফাগুন এলে কোকিল ডাকে
কুহু কুহু সুরে
পাখনা মেলে মন ছুটে যায়
কোন সুদূরে উড়ে।

ঘুঘু, শ্যামা, কোকিলের ডাক
হাওয়ায় যখন ভাসে
খোকন সোনা নকল করে
ফোকলা দাঁতে হাসে।

ভালোবাসার রবি
দিলারা সামস্ দিলু

স্বপ্ন দেখি মুক্ত আকাশ
সবুজ স্বপ্ন ভোর
রোদ ঝিলমিল শান্তি বাতাস
কাটবে ঘুমের ঘোর।
বন-বনানীর সবুজ শাখায়
বক-শালিকের খেলা
জোস্না রাতে তারার ঘরে
হাজার তারার মেলা।
সত্য জয়ের রঙ তুলিতে
বাংলাদেশের ছবি
শিল্পী মনে অনন্য এক
ভালোবাসার রবি।


মামার বাড়ি
আহাদ আলী মোল্লা

এলো যখন পৌষ-পার্বণ
মনে খুশির নাচন,
যেতেই হবে মামার বাড়ি
না হলে নেই বাঁচন।

পাঠশালা যেই ছুটি হলো
মামার বাড়ি গেলাম,
মামীর হাতের পিঠাপুলি
মজা করে খেলাম।

নানী দিলেন নতুন জামা
একটা উলের চাদর,
মামার বাড়ি ছাড়া এমন
কোথায় মেলে আদর?


মায়ের মুখের বুলি
শাহজাহান মোহাম্মদ

জন্মের পর শিখেছিলাম
মায়ের মুখের বুলি
মাতৃছায়ায় বাবার স্নেহ
বাংলাকে না ভুলি।

একুশ আসে একুশ যায়
গর্বে ভরা বুক
স্মৃতির মিনার শহর গ্রামে
খুঁজি ভাইয়ের মুখ।

উচ্চারণ আর শুদ্ধরীতি
ফুটুক কলি হয়ে
স্বীকৃতিটা বিশ্বব্যাপী
মাতৃভাষা লয়ে।


বন্ধু
মামুন সারওয়ার

রাগ করে যে কয় না কথা
মুখটা করে ভার-
সে কি তোমার আপন হলো
বন্ধু হলো আর?

বললে কথা চুপটি থাকে
কয় না কথা ফের
সে কি তোমার চায় কি ভালো
নতুন জীবনের?

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.