শ্রীদেবী
শ্রীদেবী

শ্রীদেবীর মৃত্যুতে মাথা মুণ্ডালেন আরেক ‘স্বামী’!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

বলিউড অভিনেত্রী শ্রীদেবীর আকস্মিক মৃত্যুর শোক এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি ভারতীয় সিনেপ্রেমীরা। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি তার শেষকৃত্যের দিনে সারা দেশ থেকেই তার অগনিত অনুরাগী মুম্বাইতে এসেছিলেন। অনুরাগীরা একবার শেষ দেখা দেখতে চেয়েছিলেন তাদের প্রিয় অভিনেত্রীকে। এরমধ্যে এমনও এক অনুরাগী রয়েছেন, যিনি এতটাই আবেগবিহ্বল হয়ে ওঠেন যে, প্রয়াত অভিনেত্রীর স্মরণে নিজের মাথা কামিয়েছেন।

ওই অনুরাগী মধ্যপ্রদেশের বাসিন্দা। নাম ওম প্রকাশ মেহরা। শ্রীদেবীকে নিজের স্ত্রী বলে মনে করতেন তিনি।

গত ৪ মার্চ নিজের গ্রামের লোকজনদের ডেকে মস্তক মুণ্ডন করেন তিনি।

এর কারণ হিসেবে ওমপ্রকাশ দাবি করেন, শ্রীদেবী তার স্ত্রী। সেই শ্রীদেবী মারা গেছেন। এজন্যই তিনি মস্তক মুণ্ডন করলেন।

ওমপ্রকাশের ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন, তিনি একেবারে ছোট থেকেই শ্রীদেবীর অনুরাগী। স্কুলে পড়ার সময় শ্রীদেবীর একটা সিনেমা দেখেছিলেন ওমপ্রকাশ। তারপর থেকেই তার ধ্যানজ্ঞান হয়ে ওঠেন শ্রীদেবী। প্রয়াত অভিনেত্রীকে একের পর এক চিঠি লিখেছেন তিনি। একবার শ্রীদেবী তাকে দেখা করতে ডেকেও ছিলেন। কিন্তু শেষপর্যন্ত সেই দেখা আর হয়ে ওঠেনি। শ্রীদেবীর এতটাই ফ্যান হয়ে ওঠেন ওমপ্রকাশ যে, শেষপর্যন্ত বিয়েও করেননি।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর শোকে চারদিন খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দিয়েছিলেন ওমপ্রকাশ। সূত্র: এবিপি আনন্দ

করন জোহরের সিনেমায় এপ্রিল থেকে শুটিং শুরুর কথা ছিল শ্রীদেবীর?
‘ধড়ক’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডের প্রয়াত অভিনেত্রী শ্রীদেবী ও বনি কাপুরের বড় মেয়ে জাহ্নবিকে লঞ্চ করতে চলেছেন করন জোহর। একথা তো সবারই জানা। শুধু জাহ্নবিই নন, অন্য একটি সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব শ্রীদেবীকে দিয়েছিলেন করন জোহর। আর সেই সিনেমার শ্যুটিং এ বছরের এপ্রিল মাস থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

জানা গেছে, করন যখন তার মেয়েকে বলিউডে লঞ্চের প্রস্তাব দেন, তখন দারুণ উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছিলেন শ্রীদেবী। এর ঠিক এক সপ্তাহ পরেই করন সোজা শ্রীদেবীর বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে তার আগামী একটি সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেন শ্রীদেবীকে। সিনেমার কাহিনীর রূপরেখা শুনে রাজি হয়ে যান তিনি। আগামী এপ্রিলেই শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল।

বলিউডের বিশিষ্ট পরিচালক করন জানিয়েছেন যে, তিনি শ্রীদেবীর অনুরাগী ছিলেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.