ইরানে তুর্কি বিমান বিধ্বস্ত : নিহত ১১

এএফপি ও রয়টার্স

ইরানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে তুরস্কের একটি একটি প্রাইভেট বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ১১ আরোহীর সবাই প্রাণ হারিয়েছে। রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) সারজা বিমানবন্দর থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল যাওয়ার পথে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। সোমবার দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে এ কথা বলা হয়েছে।
তুরস্ক ও ইরানের কর্মকর্তারা বলেন, বিমানটিতে আট যাত্রী ও তিন ক্রু ছিল। শনিবার সন্ধ্যায় শারজাহ থেকে ইস্তাম্বুল যাওয়ার পথে জাগরোস পর্বতমালায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। তুরস্কের গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, যাত্রীদের মধ্যে তুরস্কের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ীর মেয়ে মিনা বাসারান ছিলেন। অন্য সাত যাত্রী তার বান্ধবী। তারা মিনার বিয়ে উপলক্ষে সংযুক্ত আরব আমিরাতে গিয়েছিল। নিহত ক্রুদের মধ্যে দুইজন ছিল পাইলট। ক্রু সবাই নারী। তাৎক্ষণিকভাবে দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি।
ইরানের বার্তা সংস্থা তাসনিম জানিয়েছে, বিমানটি চাহারমহল এবং বখতিয়ারি প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শাহার-ই-কোর্দ শহরের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে।
রাষ্ট্রীয় টিভিতে মুখপাত্র জাফরজাদেহ বিমান বিধ্বস্তের খবর নিশ্চিত করে জানিয়ে বলেন, ‘তুরস্কের ব্যক্তি মালিকানাধীন বিমানটি আমাদের আকাশপথ দিয়ে যাওয়ার সময় রাডার থেকে হারিয়ে গেছে এবং শাহার-ই কোর্দের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে।’ তুরস্কের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এক উদ্ধারকর্মীর বরাত দিয়ে বলা হয়, বিমানটি পাহাড়ি এলাকায় বিধ্বস্ত হয়ে আগুন ধরে যায়। বিমানটি বিধ্বস্তের কারণ জানা যায়নি। উদ্ধারকর্মীরা বিমান বিধ্বস্ত স্থানের কাছে অগ্রসর হওয়ার চেষ্টা করলেও এলাকাটি দুর্গম হওয়ায় সেখানে পৌঁছানো কঠিন হচ্ছে। ইরানে এর আগে গত মাসেও একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ৬৫ জন নিহত হয়েছিল।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.