রাবাদা-তাণ্ডবে সমতায় দক্ষিণ আফ্রিকা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

রাবাদা তাণ্ডবে চার দিনেই জয়োৎসবে দক্ষিণ আফ্রিকা। পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে প্রোটিয়া পেসারের একার বিধ্বংসী বোলিংয়ে তছনছ অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং বিভাগ। দুই ইনিংসেই দলটির ব্যাটসম্যানেরা চরম ব্যর্থ হয়েছেন রাবাদার সুইং বলের চ্যালেঞ্জে। ফলে চার ম্যাচের সিরিজে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাও ফিরেছে ১-১ সমতায়।
গতকাল পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের চতুর্থ দিনের সূচনায় রাবাদা তোপে ছত্রখান অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় ইনিংস। জয়ের জন্য ১০১ রানের টার্গেট পাড়ি দিতে খুব একটা ঘামও ঝরেনি দক্ষিণ আফ্রিকার। ৪ উইকেট হারিয়ে চা-বিরতির আগেই জয়োৎসব স্বাগতিকদের। দুই ইনিংস মিলিয়ে রাবাদার ১১ উইকেট শিকার পার্থক্য গড়ে দেয় দুই দলের লড়াইয়ে। দ্বিতীয় টেস্টে ৬ উইকেটে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সিরিজেও সমতা প্রতিষ্ঠার উৎসবে দক্ষিণ আফ্রিকা। দলীয় ৩২ রানে দুই ওপেনারের বিদায়ের পর দৃঢ়তাপূর্ণ ব্যাটিংয়ে স্বাগতিকদের জয় নিশ্চিত করেন এবি ডি ভিলিয়ার্স ও হাশিম আমলা। তৃতীয় উইকেটে তাদের দুইজনের ৪৯ রানের জুটি সময়ের ব্যাপারে পরিণত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ৪ ম্যাচের সিরিজের সমতা প্রতিষ্ঠা।
দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৪ রানে রাবাদার ৬ উইকেট শিকার ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয় সফরকারী অসিদের। উসমান খাজার লড়াকু ৭৫ রানের ইনিংস সত্ত্বেও অস্ট্রেলিয়া আড়াই শ’র আগেই অলআউটের ফাঁদে। টিম পেইনের এক প্রান্ত আগলে রেখে অপরাজিত ২৮ রানের লড়াকু ইনিংসও কোনো কাজে আসেনি। ২৩৯ রানেই গুটিয়ে যায় অসিদের দ্বিতীয় ইনিংস। সর্বোচ্চ ৭৫ রানের ইনিংসে ১৪টি বাউন্ডারি হাঁকান উসমান খাজা।
মূলত তৃতীয় দিন শেষ বিকেলে খাজার উইকেট শিকারে আফ্রিকানদের পোর্ট এলিজাবেথ হটসিটে বসিয়ে দেন কাগিসু রাবাদা। চতুর্থ দিন সকালেও তার মারাত্মক সুইংয়ে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়েছে অস্ট্রেলিয়ার লো-অর্ডার। শেষ ভরসা মিচেল মার্শের উইকেট শিকারে সফরকারীদের হার সময়ের ব্যাপারে পরিণত করেন রাবাদা। পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের ২ ইনিংস মিলিয়ে তার ১১ উইকেট শিকার ইতিহাসেও জায়গা করে নিয়েছে। সবচেয়ে কম বয়সী বোলার হিসেবে টেস্ট ফরম্যাটে ৪ বার এক ম্যাচে দশ বা ততধিক উইকেট শিকারে কৃতিত্ব গড়েছেন রাবাদা। ২২ বছর বয়সে তিনি পৌঁছে গেছেন পাকিস্তানি সাবেক কিংবদন্তি ওয়াকার ইউনুসের ওই কৃতিত্বে। বয়স ২৩ চলাকালেই সবচেয়ে কম বয়সী বোলার হিসেবে চারবার এক টেস্টে দশ ততধিক উইকেট শিকারে ইতিহাস গড়েন ওয়াকার। পোর্ট এলিজাবেথে ম্যাচ ইউনিং পারফরম্যান্সে পাকিস্তানি তারকাকে টপকে গেলেন কাগিসু রাবাদা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
টস : অস্ট্রেলিয়া
অস্ট্রেলিয়া : ২৪৩/১০ ও ২৩৯/১০
দক্ষিণ আফ্রিকা: ৩৪২/১০ ও ১০২/৪
ফল : ৬ উইকেটে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা
ম্যান অব দ্য ম্যাচ : কাগিসু রাবাদা
সিরিজ : ৪ ম্যাচের সিরিজে ১-১ এ ড্র

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.