দ্রুত এগিয়ে চলছে ডিএনডির সংস্কারকাজ

আগামী বর্ষায় ডিএনডিবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ সেনাবাহিনীর

সেনাবাহিনীর অধীনে জোরেশোরে সংস্কারকাজ চলছে ডিএনডিতে। তাই আগামী বর্ষা মওসুমে ডিএনডিবাসীকে আতঙ্কিত না হওয়ারও পরামর্শ সেনাবাহিনীর। তবে দীর্ঘ দিনের অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে ডিএনডির খালগুলোকে মুক্ত করতে কিছুটা সময় লাগছে সেনাবাহিনীর। বর্তমানে যতটুকু কাজ সম্পন্ন হয়েছে, তা পুরো ডিএনডির সংস্কার কাজের প্রায় ১৫ শতাংশ। এতে আশাহত নয়, আশান্বিত হচ্ছেন ডিএনডিবাসী।
২০১৫ ইং সালের ২৩ জুলাই ঢাকায় পরিকল্পনামন্ত্রী মোস্তফা কামালের কাছে যান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। ডিএনডিবাসীর দুর্ভোগের চিত্র সরেজমিন দেখানোর জন্য শামীম ওসমান পরিকল্পনামন্ত্রীকে ডিএনডিতে নিয়ে আসেন। তাদের সাথে ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। পরিকল্পনামন্ত্রী পরে ডিএনডিবাসীর দুর্ভোগের ব্যাপারটি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করলে ২০১৭ সালের ১১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত একনেকের বৈঠকে ডিএনডির সংস্কারের জন্য ৫৫৮ কোটি ২০ লাখ টাকার প্রকল্পের নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। একই বছরের ৮ ডিসেম্বর এ প্রকল্প কাজের উদ্বোধন করেন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। সে থেকে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে ডিএনডিতে নামে সেনাবাহিনীর ১৯ ইসিবি ও ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্রিগেড।
সম্প্রতি সরেজমিন এ প্রকল্পের অগ্রগতি দেখতে ডিএনডিতে আসেন ১৯ ইসিবির প্রকল্প পরিচালক লে. কর্নেল মাশফিকুল আলম। এ সময় তার সাথে ছিলেন মেজর মাহতাবসহ প্রকল্পের অন্যান্য কর্মকর্তা। এ প্রতিবেদকসহ উপস্থিত সংবাদিকদের তিনি বলেন, আমরা ইতোমধ্যে প্রায় ১৫ শতাংশ কাজ সম্পন্ন করেছি। প্রথমত, ডিএনডির ৯৪ কিলোমিটার খালের অবৈধবাসীদের উচ্ছেদ এবং ডিএনডিতে বড় দু’টি ও ছোট তিনটিসহ পাঁচটি পাম্প হাউজ নির্মাণকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অনেক অবৈধ দখলদার স্বেচ্ছায় তাদের দখল ছেড়ে দিচ্ছে। কিন্তু কিছু কিছু দখলদার বিলম্ব করায় এবং তাদের কাগজগুলো যাচাইয়ের জন্য ডিসি অফিসে প্রেরণ করায় আমাদের কিছুটা সময় বেশি লাগছে। সেনাবাহিনী অনেক দ্রুত কাজ চালিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে আগামী বর্ষা মওসুমকে সামনে রেখে তিনি ডিএনডিবাসীকে চিন্তিত না হওয়ার পরামর্শ দেন। গত মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিন ডিএনডি পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল পাম্প হাউজে ট্রাকে বালু ফেলে পাম্প হাউজ নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। একইভাবে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সামনে ডিএনডি ক্যানেলে পাম্প হাউজ নির্মাণের উপযোগী করে ড্রেজার পাইপ দিয়ে বালু ফেলা হচ্ছে। একইভাবে ডিএনডির মিজমিজি পূর্বপাড়া এলাকায় ডিএনডির একটি ক্যানেলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে সেনাবাহিনী খালের জায়গা চিহ্নিত করছে। সেনাবাহিনীর কাজ দেখে অভিভূত সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী পশ্চিম এলাকার সংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাজী তোফাজ্জল হোসেন।
তিনি বলেন, গত বর্ষা মওসুমে আমরা নিদারুণ কষ্ট করেছি। সেনাবাহিনী দ্রুত কাজ করার ফলে আশা করছি, এবার আর বন্যার পানি ডিএনডিতে আবদ্ধ হয়ে থাকবে না।
ডিএনডির সংস্কার কাজের উদ্বোধনী ওই অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেন, ডিএনডির ২০ লাখ লোককে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে প্রয়োজনে প্রভাবশালী অবৈধ দখলদারদের স্থাপনাও ভেঙে দেয়া হবে। শামীম ওসমান বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ডিএনডি প্রকল্প বাস্তবায়নের তাগাদা দিয়েছেন। এ জন্য সবার কাছে প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া চেয়ে তিনি ওই দিন বলেছিলেন, এ প্রজেক্ট সম্পন্ন করার জন্য যত টাকার প্রয়োজন প্রধানমন্ত্রী দেবেন বলে পানিসম্পদ মন্ত্রী আশ্বস্ত করেছেন। এতে করে নারায়ণগঞ্জ ঢাকার চেয়েও আধুনিক একটি শহরে পরিণত হবে উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেছিলেন নতুন প্রজন্মের জন্য আমরা একটা সুন্দর নারায়ণগঞ্জ রেখে যেতে পারব। দুই বছরের মধ্যে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেছিলেন, সাংবাদিকদের সহযোগিতায় এ ফান্ড আনতে আমার অনেক সুবিধা হয়েছে।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.