শিশুর খেলার সাথী অজগর

নয়া দিগন্ত ডেস্ক

অ্যালিসার বয়স তখন মাত্র ১৪ মাস। এই বয়সের একটি শিশুর সারা দিন কাটে নানা রকম খেলনাসামগ্রী নিয়ে। অ্যালিসাও তার বয়সী শিশুদের থেকে ব্যতিক্রম ছিল না। তারও দিন কেটেছে খেলে। তবে আর দশটা শিশুর চেয়ে তার খেলার সাথী ছিল ভিন্ন। ১৩ ফুট লম্বা অজগর সাপের সাথে খেলে বড় হয়েছে সে।
অ্যালিসার বাবা জেমি গাউরিনো সাপুড়ে। বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েট শহরে। সাপ পোষা তার শখ। সাপ যে মানুষের পোষাপ্রাণী হতে পারে এটা বোঝানোর জন্য তিনি তার মেয়ের সাথে সাপের খেলা করার দৃশ্যটি ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। আর তাতেই চমকে উঠেছেন অনেকে।
দৃশ্যটি ছয় বছর আগে ধারণ করা হলেও সম্প্রতি জেমি তার ফেসবুক পাতায় ভিডিওটি দিয়েছেন। সাথে সাথে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে। বেশির ভাগ মানুষ ভিডিওটি দেখে ভয়ে শিউরে উঠেছেন। এত আগে ধারণ করা ভিডিও এখন ফেসবুকে দেয়ার কারণ জানতে চাওয়া হলে জেমি জানান, সাপকে মানুষ যতটা ক্ষতিকরভাবে আসলে সাপ ততটা ক্ষতিকর নয়। একটি কুকুরের চেয়েও সাপ মানুষের জন্য কম ক্ষতিকর। এটিও একটি চমৎকার পোষা প্রাণী হয়ে মানুষের ঘরে থাকতে পারে। সাপ সম্পর্কে মানুষের মন থেকে নেতিবাচক ধারণা দূর করতেই তিনি এত দিন পরে ভিডিওটি ফেসবুকে দিয়েছেন। ইন্টারনেট।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.