সিনেমার গল্পের দুই বোন
সিনেমার গল্পের দুই বোন

মৌসুমী-অধরা দুই বোন

আলমগীর কবির

প্রিয়দর্শিনী মৌসুমীর সঙ্গে যে শিল্পীই অভিনয় করেন তারাই তার ব্যবহার, আন্তরিকতা এবং অভিনয়ে মুগ্ধ হন। বিশেষ করে জুনিয়ার শিল্পীরা যখন তার সাথে অভিনয় করেন তাদের প্রতি মৌসুমী সহযোগিতার হাত যেমন বাড়িয়ে দেন, তেমনি স্নেহের পরশে আগলে রাখেন। চলচ্চিত্রে নবাগত নায়িকা অধরা খানের সৌভাগ্য হয়েছে মৌসুমীর সঙ্গে একই চলচ্চিত্রে অভিনয় করার। মৌসুমীর ছোট বোনের চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

ইস্পাহানী আরিফ জাহান পরিচালিত ‘নায়ক’ চলচ্চিত্রে মৌসুমী অভিনয় করছেন অদিতি খান চরিত্রে এবং অধরা অভিনয় করছেন অন্তু খান চরিত্রে। গত ১৭ মার্চ দ্বিতীয় লটের শুটিংয়ে আবার মৌসুমীর সাথে অভিনয় করেন অধরা খান। শুটিংয়ের ফাঁকে ফাঁকে বিএফডিসির এক নম্বর ফ্লোরের মেকআপ রুমে গল্পে মেতে উঠেছিলেন মৌসুমী ও অধরা।

অধরা প্রসঙ্গে মৌসুমী বলেন, ‘অভিনয় জানা নতুন শিল্পীদের চলচ্চিত্রে আসা খুব জরুরি। নতুনেরা অনেক স্বপ্ন, আশা নিয়ে চলচ্চিত্রে কাজ করতে আসে। নতুনেরা যেন সুন্দরভাবে পথ চলার সুযোগ পায়- এই শুভকামনা আমার সবসময়ই। অধরার আচার-আচরণ বেশ পরিশীলিত। তার চমৎকার এক শিল্পী মন আছে, শিল্পকে ভালোবেসে এর জন্য নিবেদিত হয়ে ধৈর্য ধরে কাজ করার একাগ্রতা আছে তার মধ্যে। অধরা ছোট হলেও তার মধ্যে আলাদা ব্যক্তিত্ব আমি লক্ষ করেছি। ধৈর্য ধরে কাজ করলে সে অনেক দূর যেতে পারবে।’

মৌসুমীর সঙ্গে কাজ করতে পারাটা নিজের অভিনয়জীবনের অন্যতম অর্জন বলে বিবেচনা করেন অধরা খান। অধরা বলেন, ‘মৌসুমী আপুকে নিয়ে কোনোরকম কিছু বলার যোগ্যতাই হয়নি আমার। তাকে নিয়ে বলার মতো আমি তেমন কেউ নই। তার পরও বলব, নায়ক চলচ্চিত্রে তিনি আমার বড় বোনের চরিত্রে অভিনয় করলেও কাজ করতে গিয়ে বারবারই আমার মনে হয় যে তিনি আমার সত্যিকারের বড় বোন। তিনি আমাকে এত ভালোবাসেন, আদর করেন যার তুলনা হয় না। আমি কৃতজ্ঞ ইস্পাহানী আরিফ জাহান স্যারের কাছে আমাকে এত বড় একটি সুযোগ দেয়ার জন্য।’

নায়ক চলচ্চিত্রে মৌসুমীর বিপরীতে অভিনয় করছেন অমিত হাসান। মৌসুমীর শুধু ১৭ মার্চই শুটিং ছিল। আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত নায়ক চলচ্চিত্রের শুটিং করবেন অধরা খান। মৌসুমী অভিনীত মুক্তিপ্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র হচ্ছে পোস্ট মাস্টার ৭১, রাত্রির যাত্রী ও নোলক। অধরা খানের প্রথম চলচ্চিত্র শাহীন সুমনের পাগলের মতো ভালোবাসি। এরপর তিনি একই পরিচালকের মাতাল চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন। নায়ক তার তৃতীয় চলচ্চিত্র। উল্লেখ্য, এখনো অধরার কোনো চলচ্চিত্র মুক্তি পায়নি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.