শাকিব-অপু রাজি
শাকিব-অপু রাজি

শাকিব-অপু রাজি

আলমগীর কবির

দুজনের ব্যক্তিগত টানাপোড়নে ফেঁসে যাচ্ছিলেন প্রযোজক ও পরিচালকরা। শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের যে জনপ্রিয়তা দেখে টাকা লগ্নি করেছিলেন তার পুরোটাই বেস্তে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল। এই অবস্থায় ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছিল মামলার। খবরটি শাকিব ও অপুর কানে পৌছার পর পূর্বে চুক্তিবদ্ধ হওয়া কাজগুলো শেষ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন উভয়েই।

বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় এই জুটি অসংখ্য জনপ্রিয় ছবি উপহার দিয়েছেন। পর্দার রসায়নের পর বাস্তব জীবনেও জুটি বাঁধেন তারা। ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ে করেন দুজনে।

বিয়ের খবর ৯ বছর গোপন থাকার পর গত বছরের ১০ এপ্রিল একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে সব ফাঁস করে দেন অপু। বিয়ের খবর প্রকাশের আট মাসের মাথায় অপুকে ডিভোর্স দিয়ে দেন শাকিব। চলতি মাসের ১২ তারিখেই তাদের বিচ্ছেদ কার্যকর হয়েছে। শাকিব-অপুর বিচ্ছেদের পর সিনেমাগুলোর ভবিষৎ অনিশ্চিত হয়ে পরে।

বিয়ের খবর জানাজানি হওয়ার পর দুজনের মধ্যে সম্পর্কের টানাপড়েনের মধ্যেই ‘রাজনীতি’ ও ‘পাঙ্কু জামাই’-এর কাজ শেষ হয়। বাকি তিনটি ছবির কাজ আটকে থাকে। এর মাঝে তাদের বিচ্ছেদ বাকি ছবিগুলোর প্রযোজক ও পরিচালকদের চিন্তায় ফেলে দিয়েছিল।

কোটি টাকা লোকসানের মুখে হতাশার মধ্যে পড়ে যান তারা। তবে সব অনিশ্চয়তাকে পেছনে ফেলে আবারো পর্দায় দেখা যাবে শাকিব-অপু জুটিকে। দুজনকে নিয়েই বাকি ছবির কাজ শেষ করতে পারবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রযোজক-পরিচালকরা।

‘মাই ডার্লিং’ ছবির পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবর বলেন, ‘অপুর সাথে কথা হয়েছে। তিনি রাজি আছেন। শাকিবের সাথেও কথা বলব।’

এদিকে ‘মা’ ছবির প্রযোজক ও পরিচালক কালাম কায়সার বলেন, ‘প্রায় কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়ে গেছে ছবিতে। তাই কাজটি শেষ করতে হবে। আমি শুটিংয়ের জন্য প্রস্তুত হয়েই শাকিবের সাথে বসব।’

‘লাভ ২০১৪’ ছবির পরিচালক জি সরকার বলেন, শাকিব খান চার দিন শিডিউল দিলেই কাজ শেষ হয়ে যাবে। ‘শাকিব ও অপু দুজনের সাথে কথা হয়েছে। অপু প্রস্তুত আছেন। শাকিবের হাতের ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে সময় বের করে আমার কাজটি করে দেবেন বলেছেন।’

এদিকে ছবিগুলোর কাজ শেষ করতে যেকোনো সময়ই শিডিউল দিতে প্রস্তুত অপু বিশ্বাস। এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি কাজগুলো শেষ করে দেওয়ার জন্য সব সময়ই প্রস্তুত। বললে রাত তিনটায়ও ছবিগুলোর জন্য শিডিউল দিতে চাই।’

ভারতের কলকাতায় ‘ভাইজান এল রে’ ছবির শুটিংয়ে আছেন শাকিব খান। যেখান থেকে শাকিব বলেন,‘ছবিগুলোর কাজ করে দেব। একটু দেরি হলেও অন্য ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে সময় বের করে কাজগুলো করতে হবে আমাকে।’

কলকাতায় শাকিব-অপুর সাক্ষাত

এদিকে রোববার কলকাতায় শাকিব খানের শুটিংয়ের সেটে ছেলে জয়কে সাথে নিয়ে হাজির হন অপু বিশ্বাস। ওই সময় কলকাতায় ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির ফটোশুটে অংশ নেন শাকিব খান। অনেক দিন পর ছেলেকে কাছে পেয়ে দারুণ খুশি হন তিনি। এ সময় তার সাথে আরও ছিলেন ছবির নায়িকা শ্রাবন্তী ও পায়েল। জয়কে কোলে নিয়ে শ্রাবন্তী শাকিব খানের সাথে এবং অপু বিশ্বাসের সাথেও ছবি তোলেন। জয়কে কোলে নিয়ে শাকিব খানের সাথে শ্রাবন্তীর ছবিটি রোববার রাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এসকে মুভিজের পেজে পোস্ট করা হয়। ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির প্রযোজনা করছে এসকে মুভিজ।

শাকিব খান জানান, কলকাতায় ছেলেকে কাছে পাওয়া তাঁ জন্য ছিল বড় ‘চমক’। তিনি বলেন, ‘আমি তখন ছবি আর পত্রিকার ফটোশুট নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আমার সাথে ছিলেন শ্রাবন্তী ও পায়েল সরকার। এ সময় জানতে পারি, জয় তার মায়ের সাথে কলকাতা থেকে শিলিগুড়ি যাচ্ছে। এরপর আমি যোগাযোগ করি। জয়ের আসার খবরে শ্রাবন্তী ও পায়েলসহ সেটের সবাই খুশি হয়। সন্ধ্যার দিকে জয় তার মায়ের সাথে শুটিং স্পটে আসে। এখানে ঘণ্টা দেড়েক ছিল। ওকে শুটিং সেটে পেয়ে কেউ কোল থেকে নামাচ্ছিল না। এরপর জয়কে নিয়ে কেনাকাটা করতে চলে যাই।’

ছেলে জয়কে সাথে নিয়ে কেনাকাটা শেষ করে দ্রুত ফিরে আসেন শাকিব খান। এরপর জয়কে সাথে নিয়ে শুটিং সেট ত্যাগ করেন অপু বিশ্বাস।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.