ফার্স্ট এইড কলারবোন ভেঙে গেলে কী করবেন

ডা: মিজানুর রহমান কল্লোল

বুকের উপরিভাগে গলার দু’পাশে ত্বকের কাছাকাছি দুটো হাড় থাকে। এদেরকে ক্লাভিকল বা কলারবোন বলে। এদের দৃশ্যতা ও বক্রতা নারীর সৌন্দর্য বর্ধন করে বলে হাড় দুটোকে বিউটিবোন বলা হয়ে থাকে।
কলারবোন ভাঙার কারণ
ষ সাধারণ ভাবে কাঁধের ওপর ভর দিয়ে মাটিতে পড়ে গেলে।
ষ কাঁধে সরাসরি আঘাত লাগলে।
ষ হাত বাইরের দিকে রেখে পড়ে গেলে।
ষ খেলাধুলার সময় কিংবা যেকোনো দুর্ঘটনায় ক্লাভিকলে আঘাত লাগলে।
উপসর্গ
ষ ব্যথা।
ষ বৈকল্য।
ষ হাত দিয়ে ভাঙা অনুভব করা।
ষ আক্রান্ত পাশের হাত নাড়াচাড়া করতে না পারা।
রোগী সাধারণত অন্য হাত দিয়ে আক্রান্ত হাতের কনুই ধরে সাপোর্ট দিয়ে থাকেন।
ষ রোগীর মাথা আক্রান্ত দিকে ঝুঁকে থাকে।
চিকিৎসা
ষ রোগীকে দিয়ে তার আঘাতপ্রাপ্ত পাশের বাহুকে সাপোর্ট দিন।
ষ গায়ের কাপড় চোপড় খুলবেন না।
ষ বোগলের নিচে প্যাড দিন।
ষ ঊর্ধ্ববাহুতে বুকের সাথে ব্যান্ডেজ বাঁধুন।
ষ ঊর্ধ্ব শরীরকে ত্রিকোনা স্লিং দিয়ে সাপোর্ট দিন।
যদি ফার্স্ট এইডয়ে অভিজ্ঞ ব্যক্তি হন তাহলে ফ্যাকচার সাময়িকভাবে স্থির করার জন্য ট্রায়াংগুলার ব্যান্ডেজ ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে রোগীকে বসাবেন, তার কাঁধ দুটো পেছনের দিকে নেবেন এবং ট্রায়াংগুলার ব্যান্ডেজ শক্ত করে বাঁধবেন। দুই শোল্ডার ব্লেডের মধ্যে প্যাড ও তুলা রাখুন। হাড় নিশ্চল হলে বাহু স্লিংয়ে রাখুন।
কলার বোন ভেঙে গেলে এলবো ব্যাগও ব্যবহার করতে পারেন।
লেখক : সহযোগী অধ্যাপক, অর্থোপেডিকস ও ট্রমা বিভাগ, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল। চেম্বার : পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিমিটেড, ২, ইংলিশ রোড, ঢাকা। ফোন : ০১৭১৬২৮৮৮৫৫

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.