দুর্ঘটনায় দাঁত পড়ে গেলে

ডা. নাহিদ ফারজানা

মিনা গ্রামের মেয়ে। প্রতিনিয়ত নানা ধরনের কাজ করতে হয়। হঠাৎ সেদিন পুকুর পাড়ে আছাড় খেয়ে উপরের সামনের দুটো দাঁত পড়ে গেল। সবাই ধরাধরি করে গ্রাম্য এক হাতুড়ে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেল। সে ক্ষতস্থানে একটু সেলাই করে সামান্য কিছু ওষুধ লিখে দিয়ে খেতে বলে ছেড়ে দিলো। মিনা বাড়ি চলে গেল। তার দাঁতের উপযুক্ত চিকিৎসা হয়তোবা ভবিষ্যতে আর হবেও না। কিন্তু যদি জানা থাকত যে, ওই দাঁত বসিয়ে দেয়া যায় এবং উপযুক্ত চিকিৎসা করালে তার দাঁত দুটো রক্ষা করা সম্ভব ছিল তাহলে হয়তো এমনটি নাও হতে পারত।
প্রতিনিয়ত আমরা নানা ধরনের সমস্যা ও দুর্ঘটনার সম্মুখীন হই। নানা রকম দুর্ঘটনায় আমরা অনেক সময় দাঁত হারিয়েও ফেলি। কিন্তু যদি দেখা যায় ওই দাঁতটি মূলসহ ভালো আছে এবং সাথে সাথে তাকে রক্ষণাবেক্ষণ করতে একজন অভিজ্ঞ ডেন্টাল সার্জনের শরণাপন্ন হই, তবে দাঁতটি মুখে স্থায়ীভাবে স্থাপন করা সম্ভব।
কোথায় বেশি হয়?
দুর্ঘটনায় সাধারণত উপরের চোয়ালের সামনের দাঁতগুলো বেশি আক্রান্ত হয়।
নিচের দাঁতে এই আশঙ্কা উপরে দাঁতের তুলনায় কিছুটা কম।
সদ্য ওঠা দাঁতগুলো বেশি আক্রান্ত হয়। কারণ এ সময় দাঁতের পেরিওডন্টাল লিগামেন্ট (দাঁত ও হাড়ের সংযোগুলো সংযোজন কলা) আগলাভাবে লাগানো থাকে যা ধীরে ধীরে স্থায়ী হতে পারে।
প্রতিকার ও প্রতিরোধ
দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে ডেন্টাল সার্জনের কাছে পৌঁছার আগে কিছু করণীয়Ñ
যদি দেখা যায় দাঁতটি সম্পূর্ণ আছে অর্থাৎ গোড়ার কোনো অংশ ভেঙে যায়নি এবং মাত্র পড়ে গেল, সে ক্ষেত্রে দেরি না করে হাত পরিষ্কার করে ধুয়ে দাঁতটি হালকাভাবে ধুতে হবে।
এ সময় দাঁতটিকে জিহ্বার নিচে, দুধে, পানিতে, অথবা ভেজা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রাখা যাবে।
দাঁতটির সংযোজন কলা শুকিয়ে গেলে তখন তাকে সংরক্ষণ করা যাবে না তাই শুকাতে দেয়া যাবে না।
দুধ, পানি বা জিহ্বার নিচে রাখলে দাঁতের সংযোজন কলা জীবিত থাকে। ফলে সংরক্ষণ করতে সুবিধা হয়।
ডেন্টাল সার্জনের কাছে পৌঁছানোর পর করণীয়
একজন অভিজ্ঞ ডেন্টাল সার্জনের কাছে গেলে তিনি তখন দাঁতের অবস্থা, রোগীর মুখের অবস্থা এবং সময় ইত্যাদি বিবেচনা করে উপযুক্ত চিকিৎসা দেবেন। যদি দেখা যায় সবকিছু ভালো আছে, তবে দাঁতটি নরমাল স্যালাইন দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে রোগীর দাঁতের সকেটে ঠিকভাবে বসিয়ে দেয়া হবে। অতঃপর উপযুক্ত অ্যান্টিবায়োটিক ও স্পিøন্টিং (ংঢ়ষরহঃরহম) করে দু’সপ্তাহ পর দাঁতের এক্স-রে করে দেখতে হবে। যদি দেখা যায় কোনো ইনফেকশন নেই তাহলে রুট ক্যানেল করে ক্যাপ বসিয়ে দিলে দাঁতটি মুখে সুন্দরভাবে ধরে রাখা সম্ভব।
দাঁত পড়ে গেলেই তা ফেলে দিতে হয় না। একটু বুদ্ধি করে তাকে প্রাথমিকভাবে সংরক্ষণ করে অতঃপর ডেন্টাল সার্জনের কাছে গেলে তিনি তার উপযুক্ত চিকিৎসা দিতে পারবেন। তবে যদি দেখা যায় দাঁতটি অনেকক্ষণ যাবৎ শুকনা অবস্থায় আছে সংযোজন কলা নষ্ট হয়ে গেছে সে ক্ষেত্রে চিকিৎসা রোগীর অবস্থার ওপর নির্ভর করবেন।

লেখিকা : ডাইরেক্টর ও ডেন্টাল সার্জন, নাহিদ ডেন্টাল কেয়ার, ১১৭/১, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা।
ফোন : ০১৭১২-২৮৫৩৭২

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.