ads

পূর্ব গুমানমর্দন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

মাত্র ৩ শিক্ষক দিয়ে চলছে দেড় শ’ শিক্ষার্থীর পাঠদান

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রামের হাটহাজারী থানার গুমানমর্দন ইউনিয়নের হালদা নদীর তীরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী পূর্ব গুমানমর্দন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান চলছে যেনতেনভাবে। এক বছর ধরে নেই প্রধান শিক্ষক। দেড় শ’ শিক্ষার্থীকে পাঠদান করছে মাত্র তিনজন শিক্ষক। এতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের।
জানা গেছে, ১৯৬৩ সালে বিশিষ্ট আইনজীবী ও তদানীন্তন বৃহত্তর গুমানমর্দন ইউনিয়ন কাউন্সিল চেয়ারম্যান মরহুম অ্যাডভোকেট আবু মোহাম্মদ য়্যাহ্ য়্যার উদ্যোগে এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের আন্তরিক সহায়তায় এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৭৭ সালে স্কুলটি সরকারীকরণ হয়। হালদার তীরে ওই গ্রামের জন্য স্কুলটি একমাত্র আলোকবর্তিকা। দীর্ঘ সময়ে শত শত শিক্ষার্থী এই বিদ্যালয় থেকে অধ্যয়ন করে বর্তমানে দেশে-বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে অধিষ্ঠিত। বর্তমানে প্রায় দেড় শ’ শিক্ষার্থী এ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করছে। বার্ষিক মেধাবৃত্তি পরীক্ষায় উল্লেখযোগ্য সাফল্যের পাশাপাশি সাহিত্য, সংস্কৃতি ও খেলাধুলায়ও শিক্ষার্থীরা বিপুল পারদর্শিতা প্রদর্শন করে আসছে।
মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন- বিএইচআরএফ-এর ডিরেক্টর অরগানাইজিং ও চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহ জানান, দুঃখজনক হলেও সত্য, মাত্র তিনজন শিক্ষক দ্বারা এই প্রাচীন বিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। মহাসড়ক থেকে দূরে অবস্থিত হওয়ায় এবং যোগাযোগব্যবস্থার অসুবিধার কারণে কোনো শিক্ষক এখানে থাকতে চান না। এক বছর হলো ইন্তেকাল করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো: এজাহারুল হক। সেই থেকে বিদ্যালয়টি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে চলছে। সম্প্রতি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের পদে দায়িত্বরত সিনিয়র শিক্ষক শিমুল কান্তি বড়ুয়াও বদলি হয়ে যান। ফলে বর্তমানে (তিনজনের মধ্যে) একজন জুনিয়র শিক্ষক জিশান সাবরিনা জিতু ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছেন।
এদিকে স্থানীয় এলাকাবাসী, অভিভাবক এবং মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশন নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে একজন প্রধান শিক্ষক ও কমপক্ষে তিনজন নিয়মিত শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে স্কুলটিকে সচল রাখার জন্য জোর দাবি জানান।
বিবৃতিদাতারা হলেনÑ বিএইচআরএফ-এর ডিরেক্টর অরগানাইজিং ও চট্টগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট জিয়া হাবীব আহ্, বিএইচআরএফ হাটহাজারী উপজেলা শাখা সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী এবং হাটহাজারী পৌর শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মালেক, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান, চবি সিন্ডিকেট সদস্য অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ নুরুল আমিন ও মানবাধিকার আইনজীবী জান্নাতুল নাঈম রুমানা, একই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবু মোহাম্মদ এমরান (প্রাক্তন শিক্ষক), মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ রফিকুল আনোয়ার, স্কুল পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আবু মোহাম্মদ লোকমান মাস্টার, প্রাক্তন সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংকার আবু মুহাম্মদ ইয়াসিন, সহসভাপতি মোহাম্মদ ফারুক আলম, সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজিব, মো: শফিউল আলম মেম্বার প্রমুখ।

ads

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.